নগরবাসী পরিবর্তন দেখতে চায় : লিটন

রাজশাহী

রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, গত ৫ বছরে রাজশাহী নগরের মানুষ কোন উন্নয়ন দেখতে পায়নি। তারা বিষয়টি বুঝতে পেরে এখন পরিবর্তন দেখতে চায়। তাই আগামী সিটি নির্বাচনে রাজশাহীর মানুষ নৌকায় ভোট দেয়ার জন্য মানুষ অপেক্ষা করছে। এখন কোন অপপ্রচারে ভোটারদের সিদ্ধান্ত যেন পরিবর্তন না হয় সে জন্য সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। ভোটারদের পাশে থাকতে হবে।

বুধবার বিকেলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ অডিটোরিয়ামে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় এ সব কথা বলেন খায়রুজ্জামান লিটন। আলোচনা সভায় সভাপত্বি করেন মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মীর ইকবাল। আলোচনা সভায় ভোটের মাঠে ঐক্যবদ্ধ থেকে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে শপথ বাক্য পাঠ করেন দলের নেতাকর্মীরা।

আলোচনা সভায় লিটন বলেন, আমি মেয়র থাকাকালে রাজশাহীর উন্নয়নে যা করতে চেয়েছিলাম সেগুলো সবই করতে চাই। আমি এই শহরকে এমন জায়গায় নিতে চাই, আগামি ৫০ বছর কোন কিছু ভাবতে হবে না। আমি নিশ্চয় ভুল করেছি, তার গত নির্বাচনে পরিচিত হয়েছি। আমার ভূলগুলো ক্ষমা করে দিবেন। এই রাজশাহীতে আমার জন্ম। এখানকার মাটি আমাকে টানে, আমি কোথাও যেতে পারবো না। আমি শিক্ষিত হয়ে এসেছি, আমার মধ্যে মেধা আছে, আমাকে আরেকটি বার সুযোগ দিন। আমি রাজশাহী বদলে দিতে চাই।
লিটন আরও বলেন, কারো চোখ রাঙানো সহ্য করবো না। সবাই সম্মিলিতভাবে বাঘের মত লড়াই করে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করবো। বিএনপি জনগনের রায়ে পরাজিত হয়েছে। কারণ জনগন উন্নয়ন চায়। বিএনপির উপর জনগনের আস্থা নেই বলেই তারা আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে বেছে নিয়েছে। আগামী ৩০ জুলাই রাজশাহীতেও ভোটাররা নৌকায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে বিজয়ী করবেন।

সভা পরিচালনা করেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার। সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শাহীন আকতার রেনী, মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, সৈয়দ শাহাদত হোসেন, অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা, নিঘাত পারভীন, যুগ্ম সম্পাদক মোস্তাক হোসেন, রেজাউল ইসলাম বাবুল ও নাঈমুল হুদা রানা।

আরো উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মাহাবুব-উল-আলম বুলবুল, প্রচার সম্পাদক উপাধ্যক্ষ কামরুজ্জামান, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক মীর তৌফিক আলী ভাদু, শিল্প ও বানিজ্য সম্পাদক ওমর শরীফ রাজিব, আইন সম্পাদক এ্যাড. মুসাব্বিরুল ইসলাম, কৃষি সম্পাদক জাহির উদ্দিন তেতু, বন ও পরিবেশ সম্পাদক নকিবুল ইসলাম নবাব, মহিলা সম্পাদিকা ইয়াসমিন রেজা ফেন্সি, ত্রাণ ও সমাজকল্যান সম্পাদক ফিরোজ কবির সেন্টু, উপ-দপ্তর সম্পাদক শফিকুল ইসলাম দোলন, উপ-প্রচার সম্পাদক মীর ইসতিয়াক আহম্মেদ লিমন, সদস্য আহ্সানুল হক পিন্টু, হাবিবুর রহমান বাবু, এনামুল হক কলিন্স, মকিদুজ্জামান জুরাত, রবিউল আলম রবিসহ নেতৃবৃন্দ।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ ডেইলি সানশাইন