সর্ববৃহৎ সোয়েটার কারখানা হচ্ছে রাজশাহীতে

9

রাজশাহীতে সোয়েটার (গামের্ন্ট) কারখানা স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ‘সাকোয়াটেক্স’ নামের কারখানাটি স্থাপনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। কারখানাটি হবে উত্তরাঞ্চলের প্রথম সোয়োটার কারখানা। এর আগে রাজশাহীতে ছোট ও মাঝারি আকারের শিল্প-কারখানা স্থাপন করা হলেও এত বড় কোনো কারখানা গড়ে উঠেনি। নগরীর বিসিক এলাকায় এ কারখানা স্থাপন করছে রাজশাহীর বাগমারার সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হকের মালিকানাধীন এনা গ্র“প। এটি স্থাপনের ফলে উত্তরাঞ্চলের ব্যবসার দ্বার খোলে যাবে। সে সঙ্গে আপাতত পাঁচ হাজার লোকের কর্মসংস্থান হবে। তবে ২০১৮ সাল নাগাদ এ সংখ্যা দাঁড়াবে ২০ হাজারে।

প্রকল্প পরিচালক আসিফ রহমান যুগান্তরকে জানান, কারখানার প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি কেনা ও প্রশিক্ষণের জন্য জাপানের একটি কোম্পানির সঙ্গে বাংলাদেশের এনা গ্রুপের চুক্তি হয়েছে। শতভাগ রপ্তানিমুখী কারখানার জন্য এখন জনবল নিয়োগের কার্যক্রম চলছে। রাজশাহীতে গ্যাস পৌঁছানোর ফলে কারখানাটি স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়। এজন্য নগরীর বিসিক শিল্প এলাকাকে নির্বাচিত করে সেখানে নির্মাণ কাজও শুরু হয়েছে। কারখানা স্থাপনের জন্য ছয়তলা ভবনের নির্মাণ কাজ চলছে। চলতি বছরের মধ্যেই গার্মেন্ট কারখানার নির্মাণ কাজ শেষ করা হবে। তিনি আরও জানান, কারখানাটিতে প্রথমদিকে প্রতি মাসে এক লাখ ২০ হাজার সোয়েটার তৈরি করা সম্ভব হবে। পরে তা বাড়িয়ে ১০ লাখে উন্নীত করা হবে। এনা গ্রুপের উপব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মোসলেহ উদ্দিন জানান, আগামী বছরের শুরুর দিকে কারখানাটি উৎপাদনে দিকে যাবে। এটি হবে রাজশাহী তথা উত্তরাঞ্চলের প্রথম গার্মেন্ট কারখানা। এখানে তৈরি সোয়েটার দেশের বাইরে রফতানি করা হবে বলে তিনি জানান। এ ছাড়াও কারখানাটি তৈরির জন্য জাপানের সিমা সেইকি কোম্পানি থেকে ক্যাকার্ড ও কেনিটিং আমদানির চুক্তি হয়েছে। তাদের কাছ থেকে প্রযুক্তি সহায়তা নেয়া হবে বলেও জানিয়েছেন।

এনা গ্রুপের চেয়ারম্যান বাগমারার এমপি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক জানান, সম্ভাবনা থাকার পরও স্বাধীনতার ৪৪ বছরেও রাজশাহীতে বড় কোনো শিল্প-কারখানা গড়ে উঠেনি। শিল্প-কারখানায় পিছিয়ে থাকা রাজশাহীকে বেছে নিয়ে এ কারখানা স্থাপন করা হচ্ছে। এতে করে অনেক বেকারের কর্মসংস্থান সুযোগ তৈরি হবে এবং ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ঘটবে। এদিকে বিভাগীয় শহর রাজশাহীতে এ ধরনের বড় শিল্প প্রতিষ্ঠান স্থাপনের উদ্যোগ নেয়ায় আশার আলো দেখছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। রাজশাহী রেশম মালিক সমিতির সভাপতি লিয়াকত আলী জানান, রাজশাহীতে নানা প্রতিকূলতার কারণে এত দিন ভারি শিল্প গড়ে উঠেনি। তবে এনা গ্রুপই প্রথম গার্মেন্ট কারখানার মতো ভারি শিল্প-কারখানা গড়ে তুলছে। এটি চালু হওয়ার পর এ অঞ্চলের শিল্প খাতে নতুন দ্বার উন্মোচিত হবে।

 

 সুত্রঃ যুগান্তর

Share.