রাজশাহীতে ধান-চালের দাম নিম্নমুখী

5

দর নিয়ন্ত্রণে সরকার খোলা বাজারে চাল বিক্রি শুর্ব করায় রাজশাহীতে ধান-চালের দাম নিম্নমুখী। সপ্তাহের ব্যবধানে এখানে কেজিতে দাম কমেছে ২ থেকে ৩ টাকা।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাজশাহী মহানগরীসহ এর উপকন্ঠের হাট-বাজার গুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দর নিয়ন্ত্রণে সরকারের খোলা বাজারে চাল বিক্রির প্রতিক্রিয়ায় রাজশাহীতে ধান-চালের দাম কমতে শুর্ব করেছে। সপ্তাহের ব্যবধানে ধানের দাম যেমন কমেছে প্রতিমণে এক থেকে দেড়শো টাকা। চালের দামও কমেছে প্রতি কেজিতে ২ থেকে ৩ টাকা। সংশিৱষ্টরা বলেন, ধান-চালের দাম আরো কমবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার নওহাটা বাজারের ব্যবসায়ী আয়নাল হক জানালেন, সপ্তাহের ব্যবধানে ধানের দাম কমেছে প্রতিমণে (৪০ কেজি) ১শ’ থেকে দেড়শো টাকা। গতকাল বৃহস্পতিবার নওহাটা বাজারে প্রতিমণ আটাশ ধান বিক্রি হয়েছে ১২শ’ থেকে সাড়ে ১২শ’ টাকায়। এক সপ্তাহ আগে এর দাম ছিল সাড়ে ১৩শ’ থেকে ১৪শ’ টাকা। চালের দামও কমেছে কেজিতে ২/৩ টাকা।

কুমারপাড়া ও কাদিরগঞ্জের চালের আড়তদাররা জানান, সপ্তাহের ব্যবধানে কেজিতে ২/৩ টাকা কমে গতকাল পাইকারি বাজারে প্রতিকেজি এলসি চাল ৪৬, মোটাচাল (গুটিস্বর্না) ৪৬, আটাশ চাল ৫২ এবং মিনিকেট ৫৬ টাকায় বিক্রি হয়েছে।
এদিকে খুচরা বাজারেও গত সপ্তাহের চেয়ে চালের দাম কমেছে কেজিতে ২/৩ টাকা। গতকাল সাহেব বাজারের খুচরা চাল বিক্রেতা রকমারি চাল ভা-ার ও মেসার্স এপি চাল ভা-ারে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গতকাল তারা প্রতিকেজি এলসি চাল পারিজা/স্বর্না ৪৮, আটাশ চাল ৫২ থেকে ৫৫ , মিনিকেট ৫৮ থেকে ৬২ টাকায় বিক্রি করেছেন। এই দাম আরো কমবে বলে তারা জানান।

সংশিৱষ্টরা বলছেন, বিভিন্ন জেলায় বন্যার কারণে ঈদের আগে থেকেই ধান-চালের দাম ছিল উর্দ্ধোমুখী। দুই দফা এলসির শুল্ক প্রত্যাহার করলেও তা চালের দর নিয়ন্ত্রণে তেমন প্রভাব ফেলেনি। বরং দাম বেড়েছে লাফিয়ে লাফিয়ে। দফায় দফায় চালের দাম বৃদ্ধিতে চরম বেকায়দায় পড়েছেন নিম্ন আয়ের মানুষরা। শুধু বন্যার কারণে নয়, কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে অধিক মুনাফা লাভের আশায় একটি চক্র চালের দাম বৃদ্ধিতে ভুমিকা রেখেছে। এদের বির্বদ্ধে তদন্ত সাপেৰে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়া শুর্ব করে সরকার। এতে অনেকেই তাদের মজুদ করা চাল নিয়ে বেকায়দায় পড়েছেন।

অন্যদিকে সরকার চালের দর নিয়ন্ত্রণে প্রতিটি জেলা-উপজেলায় ওএমএস ডিলারের মাধ্যমে খোলা বাজারে চাল বিক্রি শুর্ব করেছে। ফলে চালের দাম এখন কমতে শুর্ব করেছে। সংশিৱষ্টরা বলছেন, চালের দাম আরো কমবে।

খবরঃ দৈনিক সোনালী সংবাদ

Share.



5 Comments

Open