অনিয়মে চলছে রাজশাহীর দেশ ট্রাভেলস

রাজশাহী

রাজশাহী-ঢাকা রুটে বাসে যাত্রী পরিবহণকারী দেশ ট্রাভেলস এর বিরুদ্ধে নানারকম অভিযোগ তুলেছেন যাত্রীরা। জরাজীর্ণ বাস, অনলাইন টিকিট ভোগান্তি ইত্যাদি নিয়ে লিখিত অভিযোগ পেয়েছে রাজশাহী এক্সপ্রেস।

অভিযোগের ভিত্তিতে সরেজমিনে কয়েকটি বাস পরিদর্শন করে দেখা যায়, বেশিরভাগ নন এসি কোচের বাসগুলো রঙচটা, বাসের সিটগুলো জীর্ণশীর্ণ, অনেক সিটের লক কার্যকরী না এবং বাসের মধ্যে ময়লা-আবর্জনায় ভরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন যাত্রী অভিযোগ করেন, ১৫ অক্টোবর ২০১৭ (রবিবার) দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ঢাকাগামী কোচের একটি টিকিট নেন তিনি। দেশ ট্রাভেলস এর নির্ধারিত অনলাইন এজেন্ট বাসবিডি.কম থেকে টিকিট ক্রয় করে নির্ধারিত সময়ে কাউন্টারে গিয়ে বাসের জন্য অপেক্ষা করেন। কিন্তু দীর্ঘসময় অপেক্ষা করার পরেও তার নির্ধারিত কাউন্টারে তিনি বাসের দেখা পাননা। এরপরে তিনি বাসবিডি.কম এবং দেশ ট্রাভেলস রাজশাহী অফিসে কথা বলেন। সেখান থেকে তাকে জানানো হয়, তার বাসটি ক্যান্সেল করা হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঐ যাত্রী আরোও বলেন, বাস ক্যান্সেল করার বিষয়টি কর্তৃপক্ষ তাকে পূর্বে অবহিত করেননি এবং কর্তৃপক্ষ অন্য বাসে তার টিকিটের ব্যবস্থাও করেননি।

কয়েকমাস পূর্বে আরেকজন যাত্রী অভিযোগ করেন, অসুস্থ অবস্থায় তিনি রাজশাহী থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে দেশ ট্রাভেলস-এ উঠেন। তিনি সুপারভাইজারকে তার অসুস্থতার কথা জানান এবং বাসের ফ্যানটি চালু রাখার জন্য অনুরোধ করেন। কিন্তু সুপারভাইজার ফ্যানটি চালু রাখেন না।

এ ব্যাপারে দেশ ট্রাভেলস রাজশাহী শাখায় যোগাযোগ করে রাজশাহী এক্সপ্রেস। টিকিট ক্যান্সেলের বিষয়ে জানতে চাইলে তারা বলেন, ‘অনলাইনের সমস্ত টিকিট দেখাশোনা করে বাসবিডি.কম, শুধুমাত্র তারাই এ ব্যাপারে জানেন।’ আবার বাসবিডি.কম এ যোগাযোগ করা হলে তারা বলেন, ‘দেশ ট্রাভেলস তাদের কিছু জানাননি। তাই তারা যাত্রীদের বাস ক্যান্সেলের বিষয়টি জানাতে পারেননি।’

62 thoughts on “অনিয়মে চলছে রাজশাহীর দেশ ট্রাভেলস

  1. Dresh travels আগে অনেক ভালো সার্ভিস দিতো । আমি অনেক বার desh travels সার্ভিস নিয়েছি । কিছু দিন আগে আমি রাজশাহী থেকে ঢাকা আসলাম desh ট্রাভেলস খুব খারাপ লাগলো এত্তো ভালো বাস এমন হটাৎ করে খারাপ সার্ভিস দিতে শুরু করলো কেনো । আমার কাছে তুহিন বাস ভালো লেগেছে ওদের সার্ভিস অনেক ভালো ।

  2. 69 আমার একটি সমস্যা হয়েছিল গতকাল (১৪/১০/২০১৭)।কল‍্যানপুর কাউন্টারে গিয়েছি সকাল নয়টা ত্রিশ মিনিটে ।তার আগে সকাল ৮:০০ মিরপুর ২ হার্ড ফাউন্ডেশন এর গেট থেকে একটি সীট বুকিং দেয়ার জন্য ফোন করলে তারা বলেন কাউন্টারে এসে টিকেট কাটতে। বুকিং দেয়া যাবে না। তাই অগত্যা ৯:৩০ মিনিটে স্বশরীরে হাজিরা দিয়ে রাত্রী ১০:৪৫ টিকিট কেটে যথারীতি বাসাতে বসে আছি। আমার কাছে ঠিক ১১:০৫ একটি ফোন আসে। আমাকে জিজ্ঞেস করলো আমি কি ১০:৪৫ এর যাত্রী কিনা।আমি বললাম ঠিক আছে ।তখন আমাকে ওপার থেকে জানানো হলো আপনার নির্ধারিত গাড়ি এখন নাটোরের উদ্দেশ্য রওনা হয়েছে । আমি এখন কোথায়? আমি তো থ। আমাকে টিকিট দেখতে বললে আমি টিকিট দেখে হতবাক হয়ে যাই। সাথে সাথে কাউন্টারে ফোন দিয়ে সব বলার পর আমাকে বলছে যে ,আমরা টাকা যদি যাচাই করে নিতে পারি আপনারা টিকেট কেন দেখে নেন নাই। আমি কি বলবো বুঝতে পারছিলাম না । পরে অবশ্য আমাকে ফোন করে জানিয়ে দেয় যে আমার টিকিট টি রাত্রি তে বদলে দেয়া হয়েছে। আমি বরাবরই দেশ ট্রাভেল এজেন্সির বাসে রাত্রির যাত্রী।

  3. শুধু দেশ ট্রাভেলসই নয়, প্রায় বাস কম্পানী গুলোরই একই অবস্থা, আর এসব কথা বলে বা প্রকাশ করেও বোঝানো যায়না, একমাত্র ভ্রমণকারী যাত্রীরাই অনুভব করতে পারে সেই সব বাসে ভ্রমণকালীন যন্ত্রণা । আর বাস চলন্ত অবস্থায় যে অনুভুতি তাতে প্রতিটা যাত্রীই মনে মনে পরিবার এবং আল্লাহর কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন ।

  4. রাজশাহীতে দেশট্রাভেলসের মেইন Counter এ যারা কর্তব্যরত আছেন তাদের আচরনে মনে হয় তারা একেকটা মস্তবর জমিদারের বাচ্চা, যাত্রীদের সাথে নোংরা আচরন করে এবং জমিদারি ভাব দেখায়,,, আমি বিগত ৩ বছর যাবত নিয়মিত মাসে ১ থেকে ২ বার ঢাকা টু রাজশাহী যাতায়াত করি,, দেশট্রাভেলসে অনেকবার যাতায়াত করেছি কিন্তুু এখন just বর্জন!! “

  5. আমারই একই অবস্থা হয়েছিল, আমি গত28/10/2017 ইং তারিখে 03/10/17 ইং তারিখের রাজশাহী থেকে ঢাকা দুইটা টিকিট কেটেছিলাম, কিন্তু হঠাত্ ট্রিপের দিন দুপুর দুইটার সময় বলে আজকের ট্রিপ কেন্সিল, আমি তখন কাউন্টারে আসার জন্য রাস্তায় ছিলাম, সেইদিন নাকি ধর্মঘট ছিলো তাই সকালে ট্রিপ কেন্সিল করেছে। কিন্তু কথা হলো ট্রিপ কেন্সিল হওয়ার পরপরই কেন আমাকে জানানো হলোনা? আমি কাউন্টারে গিয়ে এই প্রশ্ন করলে ওরা মূর্খের মতো জবাব দেয় যা দেশ ট্রাভেলসের স্টাফদের মানায়না

  6. আমার মনে হয় এই বাস কোম্পানিটিতে কিছু অাভ্যন্তরীন জটিলতা চলছে। এই কারনে তারা আর এই ব্যবসায় তেমন আগ্রহী নয়। তাইতো তাদের বর্তমান সার্ভিস এমন নিম্নমুখী। এভাবে সার্ভিস কত দিন চলে, এটাই দেখার বিষয়। রাজশাহীর গাড়ী হিসাবে খারাপ লাগে।

  7. পরিবহন এমন একটা জায়গা যেখানে মানুষের মন জয় করা টা এক বারেই অসম্ভব। দেশ না সব পরিবহণ এই কিছু না কিছু সমস্যা হয়েই থাকে।আর এগুলো রাস্তা পথের ব্যাপার কখন কোথায় কি হয় বা হবে বলা খুব ই কঠিন। বিভিন্ন সময় হঠাট করেই সিদ্ধান্ত নিতে হয়। এসময় আসলে সার্ভিস ১০০% ভাবে দেওয়া যাই না।

  8. গত ১৩/০৭/১৭ তে ওদের এসি বাস দূর্ঘটনার স্বীকার হয়, ৪ জন মারাও যায়। বাসটি দূর্ঘটনার ঠিক পরেই ওদের একটি বাস যাচ্ছিল আমরা সাহায্য চাইলেও বাসটি দাড়ায়নি, সেদিনের পর থেকে দেশ ট্রাভেলস এ সকল যাত্রা বন্ধ করেছি।

Comments are closed.