অব্যাহত ধর্ষণের প্রতিবাদে রাজশাহীতে মানববন্ধন

রাজশাহী

দেশব্যাপী অব্যাহত ধর্ষণের প্রতিবাদ ও ধর্ষকদের গ্রেফতার করে ফাঁসির দাবিতে রাজশাহীতে প্রতিবাদী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ-সমাবেশ কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

সোমবার (৬ অক্টোবর) দুপুরে নগরীর সাহেববাজার জিরো পায়েন্টে কর্মসূচি পালিত হয়।

এতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন পেশার মানুষ সংহতি জনিয়ে বক্তব্য দেন।

রাজশাহী কলেজের শিক্ষার্থী মিনহাজ তৌহিদ, এম ওবাইদুল্লাহ ও আব্দুর রহিমের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- পরিবেশ আন্দোলনের নেতা মাহাবুব টুংকু, ছাত্রনেতা তামিম সিরাজী, নারীনেত্রী লিশা আক্তার, রক্তবন্ধনের অ্যাডমিন আলপনা আক্তার শোভা, রুমেল রহমান প্রমুখ।

মানববন্ধন থেকে বক্তারা ৬ দফা দাবি জানান। দাবিগুলো হলো, ধর্ষণের বিচারের জন্য দ্রুত আলাদা ট্রাইব্যুনাল গঠন, সুষ্ঠু তদন্তের ভিত্তিতে যে কোনো ধর্ষণের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ড এবং গণধর্ষণ এর ক্ষেত্রে প্রকাশ্যে ফাঁসি, ১৮ বছরের নিচে কোনো কিশোরী ধর্ষিত হলে তার পড়াশোনা, চিকিৎসাসহ সকল দায়ভার রাষ্ট্রের গ্রহণ, ধর্ষণ মামলা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের মাধ্যমে নিস্পত্তি, ধর্ষণকে জামিন অযোগ্য অপরাধ বলে ঘোষণা, ৩ মাসের মধ্যে আগে সংগঠিত সকল ধর্ষণ মামলার বিচারের কাজ নিস্পত্তি এবং ধর্ষণ মামলায় প্রশাসনের কারও স্বজনপ্রীতি, গাফিলতি ধরা পড়লে অথবা টাকা নিয়ে নিষ্পত্তি করতে চাইলে বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ।

এসব দাবি আদায় না হলে কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয়া হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ধর্ষকদের কোনো বাবা নেই, মা নেই, কোনো জাত নেই, কোনো ধর্ম নেই। তাদের একমাত্র পরিচয় তারা ধর্ষক। ধর্ষকের একমাত্র শাস্তি মৃত্যুদণ্ড হতে হবে। আমাদের মা-বোনেরা নিরাপদে চলাফেরা করুক, আমাদের সন্তানেরা নিরাপদে বেড়ে উঠুক।

মানববন্ধনে জাতীয় আদিবাসী পরিষদ, রক্তবন্ধন, ইয়্যাস, সূর্যকিরণ বাংলাদেশ, ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদসহ রাজশাহীর বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন সংহতি জানিয়ে অংশ নেয়।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ বাংলানিউজ