ইন্টারনেট সেবার নামে লিংক 3’র প্রতারণা

অন্যান্য খবর জাতীয়

বর্তমান সময়ে উন্নতশীল দেশ গড়তে প্রযুক্তির ব্যবহার অপরিসীম। ইন্টারনেট ব্যবহারের মধ্যে দিয়ে তথ্যপ্রযুক্তিতে দেশকে এগিয়ে নেয়া সম্ভব। সারা দেশে ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দিতে সরকার নিরলস ভাবে কাজ করছে। ইন্টারনেট সেবার বিস্তার ছড়িয়ে দিতে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোও সেবা দিচ্ছে।

কিছু সংখ্যক বেসরকারি ইন্টারনেট সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ভালো সার্ভিসের নামে গ্রাহকদের হয়রানি করছে। এমনি একটি প্রতিষ্ঠান লিংক৩ টেকনোলজিস লিমিটেড। যারা ইন্টারনেট সেবা প্রদানের নামে ধান্ধাবাজির ব্যবসায় নেমেছে। যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগের কোন শেষ নেই।

সরকার দফায় দফায় ইন্টারনেট এর দাম কমালেও লিংক৩ গ্রাহকদের কাছ থেকে বেশি পরিমাণ টাকা নিচ্ছে বলে অভিযোগ করছে গ্রাহকরা। অন্য সকল ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সংযোগ ১.৫ এমবিপিএস মাত্র ১ হাজার টাকার কমে পাওয়া যায়, সেখানে লিংক-৩ প্রায় দেড় হাজার টাকা নিচ্ছে বলে গ্রাহকরা জানায়।

লিংক ৩ ব্যবহারকারী পাথপন্থের বাসিন্দার আনোয়ার হোসেন জানায়, গত দেড় বছর ধরে আমি লিংক ৩ ব্যবহার করছি, প্রথম অবস্থায় তাদের ইন্টারনেট গতি ভালো ছিল। এখন তাদের ইন্টারনেট গতি একেবারেই বাজে। তাই বাধ্য হয়ে তাদের ইন্টারনেট লাইন ব্যবহার থেকে বিরত হতে হলো।

তিনি আরও বলেন, গত দেড় বছরের ইন্টারনেটের দাম কমলেও তাদের দাম ১ টাকা কমেনি, বরং তাদের গতি কমেছে। কোন ধরনের সমস্যায় পরলে তাদের হেল্পলাইনে ফোন দিলে, ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করতে হয়, এমনকি ২-৩ দিন চেষ্টা করেও তাদের সাথে যোগাযোগ করা যায় না।

তিনি অভিযোগ করেন, এইটা মনে হয় তাদের একটা ধান্ধাবাজির ব্যবসা কারণ হেল্পলাইনে ফোন দিলে প্রতি মিনিটে প্রচুর টাকা কাটে। কলাবাগানের বাসিন্দার সাইফুল ইসলাম মুরাদ বলেন, বেশি কিছু দিন আগে লিংক৩ তাদের সিষ্টেমের আপডেট করে, যার কারণে আমার ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ হয়ে যায়। নতুন সিষ্টেম আমাকে জানায়নি তারা, আমি তাদের হেল্পলাইনে অনেকবার চেষ্টা করেও তাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারিনি। ৪ দিন চেষ্টার পর যোগাযোগ করলে তারা জানায় আমার ফোনে নাকি ইউজার ও পাসওয়ার্ড দিয়েছে, কিন্ত আমি পাইনি। পরবর্তিতে তারা আমাকে নতুন সিষ্টেমের সব কিছু পাঠায়।

দেলোয়ার নামের এক গ্রাহক জানায়, তাদের হেল্পলাইনে ৩-৪ দিন যোগাযোগ করে পাই না , তাই বাধ্য হয়ে তাদের লোকাল নাম্বারে ফোন করি। কিন্ত তাদের লোকাল নাম্বার সারাদির ব্যস্ত দেখায়। বিল পরিশোধে সমস্যা হলে লোকাল নাম্বার থেকে ফোন আসে। বাকি অন্য সময় তাদের সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয় না।

অনিক নামে এক গ্রাহক জানান, ১.৫ এমবিপিএস ১৪০০ টাকায় ব্যবহার করি, এমনি অনেক বেশি। তার উপর আবার মাসে একটা ঝামেলা হলে তাদের কাছে ফোন করে আর ৫০০ টাকা শেষ করতে হয়। তাদের সার্ভিস নিয়ে খুবই অশান্তিতে আছি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কর্পোরেট হাউজের এক প্রধান নির্বাহী জানান, প্রথম অবস্থায় তাদের ইন্টারনেট ব্যবহার করতাম, মাসে প্রচুর বিল দিতে হয়েছে। তখন ডাউনলোড গতি ভালো ছিল। পরে তাদের সার্ভিস ও গতি খুবই খারাপ হয়ে যায়, শেষে বাধ্য হয়ে সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করতে হয়েছে।

এ ব্যাপারে তাদের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। লিংক৩ টেকনোলজিস লিমিটেড এর ২টি অফিসিয়াল ফোন নম্বারে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে নাম্বার দুইটি বন্ধ পাওয়া যায়।