ঈদের দিন কোথায় কোথায় বৃষ্টি?

জাতীয়

ঈদুল আযহার দিন ঢাকায় হালকা থেকে মাঝারি এবং চট্টগ্রাম ও রংপুরে ভারি বৃষ্টিপাত হতে পারে বলে আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। এছাড়া সিলেট ও বরিশালেও বৃষ্টিপাত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

শুক্রবার (০১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ রুহুল কুদ্দুস বলেন, শনিবার (০২ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রাম এবং রংপুরে সব থেকে বেশি বৃষ্টিপাত হবে।

সিলেট ও বরিশালে কিছুটা কম হলেও দিনের বিভিন্ন সময়ে বৃষ্টির আশঙ্কা রয়েছে বলে জানান রুহুল কুদ্দুস।

আর ঢাকাতেও বৃষ্টির শঙ্কা রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, সকালে ঢাকায় হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হবে। বিকেলে বেশি বৃষ্টিপাত হবে।

ঈদের দিন বাংলাদেশে ৮০-৯০ শতাংশ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া বিষয়ক কয়েকটি আন্তর্জাতিক ওয়েবসাইট। এরমধ্যে শনিবার সকাল ৭টায় বৃষ্টির আভাস রয়েছে। রোববার (০৩ সেপ্টেম্বর) দিনের বেশির ভাগ সময় মেঘ-রোদের লুকোচুরির পর বিকেলে ৩টায় বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।

বাংলাদেশের আবহাওয়া অফিস জানায়, ভারতের গুজরাট ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত সুস্পষ্ট লঘুচাপটি দ‍ুর্বল ও গুরুত্বহীন হয়ে পড়েছে। মৌসুমী বায়ুর অক্ষ গুজরাট, উত্তর প্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ এবং বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত। এর একটি বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত অবস্থান করছে। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের ওপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে দুর্বল থেকে মাঝারি অবস্থায় রয়েছে।

সন্ধ্যা ৬টায় আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় এবং ঢাকা, ময়মনসিংহ, রাজশাহী, রংপুর, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের অনেক জায়গায় অস্থায়ী দম্কা হাওয়াসহ হাল্কা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ভারি ও অতিভারি বর্ষণ হতে পারে।

ঢাকায় শনিবার সূর্যোদয় ভোর ৫টা ৪০ মিনিটে। পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টায় বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

খবরঃ বাংলানিউজ

1 thought on “ঈদের দিন কোথায় কোথায় বৃষ্টি?

Comments are closed.