এখনও করোনা মুক্ত রাজশাহী শহর, চলাচলের ওপর নতুন নিষেধাজ্ঞা

রাজশাহী

রাজশাহী বিভাগে শনিবার (৯ মে) পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৮৭ জন। জেলায় রয়েছে ১৭ জন। তবে আশার কথা হচ্ছে- মহানগর এলাকায় এখনো কোনো করোনা পজিটিভ রোগী শনাক্ত হয়নি। তাই উদ্ভূত পরিস্থিতিতে রাজশাহী শহরকে করোনা মুক্ত রাখতে উপজেলা পর্যায়ে চলাচলে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে রাজশাহী জেলা প্রশাসন।

করোনার সংক্রমণ রোধে রাজশাহীর এক উপজেলা থেকে আরেক উপজেলায় চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এরইমধ্যে এ সংক্রান্ত একটি বিশেষ বিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন- রাজশাহীর জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. হামিদুল হক।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ রাজনৈতিক অধিশাখা-২ এর একটি নির্দেশনা মতো রাজশাহী জেলা প্রশাসক এই বিশেষ বিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন। প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনাসহ ইতোমধ্যে তা রাজশাহীর ৯ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

রাজশাহী জেলা প্রশাসকের ওই বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, রোববার (১০ মে) থেকে শপিংমল ও দোকানপাট খুললেও আন্তঃজেলা, আন্তঃউপজেলা যোগাযোগ/জনগণের চলাচল কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে। অর্থাৎ কোনোভাবেই রাজশাহীর এক উপজেলার লোক অন্য উপজেলায় এবং এক জেলার লোক অন্য  জেলায় যাতায়াত করতে পারবেন না।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, আসন্ন ঈদুল ফিতরের ছুটিতে সকলকেই নিজ নিজ এলাকার কর্মস্থলে থাকতে হবে এবং আন্তঃউপজেলা ও আন্তঃজেলায় ভ্রমণ থেকে নিবৃত করতে হবে। প্রতিটি শপিংমলে প্রবেশের সময় হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারসহ স্বাস্থ্য বিভাগের নির্দেশনা মানার বিষয়টি অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে। সবাইকে অবশ্যই ব্যক্তিগত নিরাপত্তার স্বার্থে মাস্ক ব্যবহারের বিষয়টিও নিশ্চিত করতে হবে।

এছাড়াও ঈদ-উল-ফিতরকে ঘিরে জেলা প্রশাসন জনগণের চলাচলের জন্য আরও কয়েকটি নির্দেশনা দেওয়া হয়। এতে বলা হয়, প্রতিটি শপিংমলের সামনে ‘স্বাস্থ্যবিধি না মানলে মৃত্যুঝুঁকি রয়েছে’ সম্বলিত ব্যানার টানাতে হবে।

রাজশাহী শহরের সকল শপিংমল, দোকানপাট সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত সীমিত রাখতে হবে। তবে ফুটপাতের ওপর কোন হকার বা ফেরিওয়ালা বসতে পারবেন না। রাত ৮টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কোনোভাবেই বাইরে যাওয়া যাবে না।

এর আগে গত ১২ এপ্রিল রাজশাহী জেলার পুঠিয়া উপজেলায় ঢাকার শ্যামলী থেকে আসা এক ব্যক্তির শরীরে প্রথম করোনা শনাক্ত হয়। পরিস্থিতি মোকাবিলায় গত ১৪ এপ্রিল রাজশাহীতে ‘লকডাউন’ ঘোষণা করা হয়। এরই মধ্যে জেলায় ১৭ জন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছেন। মারা গেছেন একজন। তবে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের অর্থাৎ মহানগর এলাকায় এখন পর্যন্ত করোনা পজিটিভ রোগী শনাক্ত হয়নি।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ বাংলানিউজ