ওপেনিংয়ে তামিমের সঙ্গী ১৩জন!

খেলাধুলা

opening

তামিম ইকবালের জন্য একজন যোগ্য সঙ্গী চাই! চাইলে এরকম বিজ্ঞাপণ দেওয়া যেতে পারে। কারণ গত কয়েকবছর ধরে তামিমের সঙ্গী খোঁজায় নির্বাচকদের কম মাথা ঘামাতে হয়নি। বেশ ক’জনকে বাছা হলেও ফলাফল খুব একটা ভালো আসেনি। আসছে পাকিস্তান সিরিজে প্রথম দুটি ওয়ানডে ম্যাচের জন্য তামিমের সঙ্গী হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে ঘরোয়া ক্রিকেটের পরীক্ষিত পারফরমার রনি তালুুকদারকে। কোন সন্দেহ নেই নিজের যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েই জাতীয় দলে এসেছেন তিনি।

এখন প্রশ্ন হলো ওপেনিংয়ে রনি স্থায়িত্ব পাবেন তো? রনি হতে যাচ্ছেন তামিমের ১৩ তম ওপেনিং সঙ্গী। গত তিন বছরে তামিমের ওপেনিং সঙ্গী বদলেছে মোট পাঁচবার। কেউই নিজের জায়গা পাকাপোক্ত করতে পারেননি। রনি ২০১৪-১৫ মৌসুমে ঘরোয়া ক্রিকেটে নজরকাড়া পারফরম্যান্স করেছেন। ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগের ১৬ ম্যাচে করেছেন ৭১৪ রান। জাতীয় ক্রিকেট লিগেও (এনসিএল) দুর্দান্ত খেলেছেন রনি। ৭ ম্যাচে তার ব্যাট থেকে এসেছে ৭৭৭ রান। ২০০৭-০৮ মৌসুমে ঘরোয়া ক্রিকেটে অভিষেকের পর থেকেই আলো ছড়াচ্ছে রনির ব্যাট। সাফল্যর স্বীকৃতিস্বরুপ পুরস্কার পেলেন এবার জাতীয় দলে নাম লিখিয়ে। রনির শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন লিটন দাস। প্রথম শ্রেনীর ক্রিকেট তার পাঁচটি সেঞ্চুরি রয়েছে। ঘরোয়া ওয়ানডে টুর্নামেন্টে লিটনের ব্যাট থেকে এসেছে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান।

অভিজ্ঞতায় লিটনের চেয়ে এগিয়ে থাকায় নির্বাচকদের ভোট রনির পকেটেই গিয়েছে। রনি ২৬টি প্রথম শ্রেনী এবং ২৭টি লিস্ট ‘এ’ ম্যাচ খেলেছেন, যা তাকে জাতীয় দলে ঢুকতে সাহায্য করেছে। তবে লিটনও অনুর্ধ-১৯ দল থেকেই নির্বাচকদের নজরে আছেন। বিশ্বকাপে এনামুলের চোট সুযোগ করে দেয় ইমরুল কায়েসকে। কিন্তু ৩ ম্যাচ খেলে ইমরুল করেন মাত্র ৫ রান। তাই স্বাভাবিকভাবেই পাকিস্তান সিরিজে নেই তিনি। সৌম্য সরকার ওপেনিংয়ে খেললেও তিনি তিন নম্বরেই বেশি স্বচ্ছন্দ। তাই তামিমের সঙ্গী হিসেবে রনিকেই বেছে নেয় নির্বাচকরা। রনি কী পারবেন তামিমের সহায়ক হয়ে উঠতে? এ প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। কারণ গত তিন বছরে তামিমের সঙ্গী হয়ে ইনিংস শুরু করেছেন মোহাম্মদ আশরাফুল, শামসুর রহমান, ইমরুল কায়েস, আনামুল হক এবং সৌম্য সরকার। একই সময়ে তার টেস্ট ওপেনিং সঙ্গী ছিল ছয় জন, টি-টোয়েন্টিতে চারজন।