করোনায় একদিনে রেকর্ড ২৬৪ জনের মৃত্যু

জাতীয়

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ২৬৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা এখন পর‌্যন্ত একদিন সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড।

আর এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে ২১ হাজার ৯০২ জনের। নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ১২ হাজার ৭৪৪ জন। সবমিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৩ লাখ ২২ হাজার ৬৫৪ জনে।

বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাছিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৫ হাজার ৭৮৬ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ১১ লাখ ৫৬ হাজার ৭৮৬ জন।

সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৭০৭ টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাব ১৩৩টি, জিন এক্সপার্ট ৫৩টি, র্যাপিড অ্যান্টিজেন ৫২১টি। এসব ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ৪৬ হাজার ৫১২টি। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৪৬ হাজার ৯৯৫টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৭৯ লাখ ৯৫ হাজার ৬৩৮টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ২৭ দশমিক ১২ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৫৪ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৮৭ দশমিক ৪৭ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৬৬ শতাংশ।

এদিন মারা যাওয়া ২৬৪ জনের মধ্যে পুরুষ ১৪০ জন ও ১২৪ জন নারী। তাদের ঢাকা বিভাগে ৮৭ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৫৬ জন, রাজশাহী বিভাগে ১৯ জন, খুলনা বিভাগে ৩৫ জন, বরিশাল বিভাগে ১৬ জন, সিলেট বিভাগে ২৩ জন, রংপুর বিভাগে ১৮ জন এবং ময়মনসিংহ বিভাগে ১০ জন রয়েছেন। সরকারি হাসপাতালে ১৯০ জন, বেসরকারি হাসপাতালে ৫৫ জন এবং বাড়িতে ১৯ জন মারা গেছেন।

মৃত ব্যক্তিদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, শূন্য থেকে ১০ বছরের মধ্যে আছেন একজন, ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে একজন, ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে পাঁচজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ২৫ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ৩১ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৫৯ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ৭৪ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ৫০ জন, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে ১৫ জন, ৯১ থেকে ১০০ বছরের মধ্যে তিনজন।

গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন তিন হাজার ৮১৩ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন তিন হাজার ২৬৭ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন তিন লাখ ১৫ হাজার ৩৩৭ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন দুই লাখ ২৬ হাজার ৯৭৪ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ৮৮ হাজার ৩৬৩ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে করোনা ভাইরাসের প্রথম রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ বাংলানিউজ