করোনা রোধে বন্ধ হলো কর্ণফুলী-তিতাস এক্সপ্রেস

জাতীয়

বিশ্বময় থাবা নভেল করোনা ভাইরাসের প্রভাবে ঢাকা-চট্টগ্রাম-ঢাকা রেলপথে চলাচালকারী কর্ণফুলী এক্সপ্রেস ও তিতাস কমিউটার দুটি ট্রেন চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

সোমবার (২৩ মার্চ) রাতে চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয় বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। এর ফলে মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) ভোর থেকে থেকে ট্রেন দুইটি আর চলাচল করবে না।

সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, লিজের মাধ্যমে এস আর ট্রেডিং নামে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান কর্ণফুলী এক্সপ্রেস ও তিতাস কমিউটার ট্রেন দুইটি পরিচালনা করে থাকে।

করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে এবং যাত্রীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য মঙ্গলবার থেকে কর্ণফুলী এক্সপ্রেস ও তিতাস কমিউটার ট্রেনের চলাচল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলপথ কর্তৃপক্ষ। সোমবার রাতে বন্ধ রাখার বিষয়টি ট্রেন দুইটি লিজ নিয়ে চালানো প্রতিষ্ঠানকে জানিয়ে দেওয়া হয়।

ট্রেন চলাচল বন্ধের ব্যাপারে জানতে চাইলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশন মাস্টার মো. শোয়েব বলেন, ট্রেন চলাচল বন্ধের ব্যাপারে আমরা কোনো চিঠি পাইনি। লিজ নেওয়া প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ বিষয়টি সম্পর্কে বলতে পারবে।

এ ব্যাপারে কর্ণফুলী এক্সপ্রেস ও তিতাস কমিউটার ট্রেনের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পরিচালক মীর মো. শাহীন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে এবং যাত্রীদের সুরক্ষায় ট্রেন দুইটির চলাচল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। আমাদের প্রতিষ্ঠান প্রধান রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের নেওয়া সিদ্ধান্তের কথা আমাদের জানিয়ে ট্রেন দুইটির চলাচল বন্ধ রাখতে বলেছেন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ট্রেন দুইটি আবারও চলাচল করবে।

ঢাকা-চট্টগ্রাম-ঢাকা রেলপথে চলাচালকারী কর্ণফুলী এক্সপ্রেস (ডাউন) ট্রেনটি প্রতিদিন সকাল ৮টা ৪৫ মিনিটে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে এবং চট্টগ্রাম থেকে সকাল ১০টা ৩০ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশ্যে কর্ণফুলী এক্সপ্রেস (আপ) ট্রেনটি যাত্রা করে। আর আখাউড়া-ঢাকা-ব্রাহ্মণবাড়িয়া-ঢাকা-আখাউড়া রেলপথে চলাচলকারী তিতাস কমিউটার ট্রেনটি প্রতিদিন সকাল ৫টা ১৫ মিনিটে আখাউড়া থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে এবং ঢাকা থেকে সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। এরপর দুপুর ১২টা ৩০ মিনিটে এই ট্রেনটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে ঢাকার পথে যাত্রা করে। এই ট্রেনটি আবারও ঢাকা থেকে বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে আখাউড়ার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ বাংলানিউজ