খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতে রাজশাহীতে ‘বিশুদ্ধ খাদ্য আদালত’

রাজশাহী

খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতের লক্ষ্যে রাজশাহী মহানগরীতে ‘বিশুদ্ধ খাদ্য আদালত’ এর কার্যক্রম শুরু হয়েছে। রাজশাহী মহানগর দায়রা জজ ও.এইচ.এম. ইলিয়াস হোসাইন এবং চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট নূরুল আলম মোহাম্মদ নিপু এ উদ্যোগ নিয়েছেন।

ইতোমধ্যে পুলিশের সহায়তায় প্রথমবারের মতো অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। রাজশাহী মহানগরীর সাহেব বাজার জিরোপয়েন্ট এলাকায় এ অভিযান চালানো হয়। পর্যায়কমে সব এলাকায় অভিযান চলবে।

রাজশাহী মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২ এর বিচারক মো. সাদেকীন হাবীব বাপ্পী বলেন, প্রথম দিন সংক্ষিপ্ত বিচারের নিমিত্তে ‘বিশুদ্ধ খাদ্য আদালত’ সাহেব বাজার জিরোপয়েন্ট এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন।

রাজশাহী জেলা খাদ্য পরিদর্শক শহিদুল ইসলামের অভিযোগে এলাকার বিভিন্ন খাদ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ঘুরে দেখা হয়। এ সময় অভিজাত রেস্তোরাঁ ‘চিলিস’র রান্নাঘর পরিদর্শন, মহানগরীর বিশাল কনফেকশনারি ও কুন্ডু বেকারির মেয়াদোত্তীর্ণ এবং নিম্নমানের শিশু খাদ্য, চকলেট, টমেটো সস, কাস্টার্ড পাউডার, পান মসলাসহ বিভিন্ন খাদ্যদ্রব্য জব্দ করে জনসম্মুখে ধ্বংস করা হয়। নিরাপদ খাদ্য আইন-২০১৩ এর বিধি সম্পর্কে এ কার্যক্রমে সবাইকে সচেতন হওয়ারও আহ্বান জানানো হয়।

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপন মূল্যে এবং নিরাপদ খাদ্য আইন- ২০১৩ এর ৬৫ (১) ও ৬৫ (২) ধারা অনুযায়ী এ কার্যক্রম পরিচালিত হয়। এর উদ্দেশ্য হলো: মানুষের জীবন ও স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য নিরাপদ খাদ্য পাওয়ার অধিকার নিশ্চিতের উদ্দেশ্যে রাজশাহী মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটের আঞ্চলিক এখতিয়ার সম্পন্ন এলাকায় ভেজাল খাদ্যদ্রব্য উৎপাদন, আমদানি, প্রক্রিয়া, মজুত, সরবরাহ, বিপণন, বিক্রি রোধ এনং ফরমালিন আমদানি, উৎপাদন, পরিবহন, মজুত, বিক্রি ও ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ ও ক্ষতিকর রাসায়নিক পদার্থ হিসেবে তার অপব্যবহার রোধসহ সরকার নির্ধারিত সঠিক ওজন নিশ্চিত করা।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ বাংলানিউজ