গরমে পুড়ছে রাজশাহী

রাজশাহী

একে তো গরম, তার ওপর বেশ কয়েকদিন ধরে বৃষ্টির দেখা নেই। গরমে হাঁসফাঁস করছে রাজশাহীসহ গোটা দেশের মানুষ। বৃষ্টি না হওয়ায় প্রায় প্রতিদিনই তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে। গরমের তীব্রতা গ্রামের চেয়ে শহরে বেশি। আবহওয়া অধিদফতর সূত্রে জানা যায়, রাজশাহীসহ দেশের বিভিন্ন বিভাগ ও জেলার ওপর দিয়ে এখন মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। এই তাপপ্রবাহ আরও কয়েকদিন অব্যাহত থাকবে। শিগগিরই বৃষ্টির কোনো সম্ভবনা নেই।

আবহাওয়াবিদরা জানান, বছরের এ সময়ে তাপমাত্রা সাধারণত ৩৩ থেকে ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ওঠানামা করে। বর্ষা দোরগোড়ায় হলেও মৌসুমি বায়ু দেশের উপকূল পর্যন্ত না আসায় বৃষ্টি শুরু হতে দেরি হচ্ছে। এ কারণে গরমের তীব্রতাও বৃদ্ধি পাচ্ছে। আশা করা হচ্ছে, দু-একদিনের মধ্যে ইয়াঙ্গুন থেকে মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশ উপকূলে বিস্তৃত হলে বৃষ্টি হতে পারে।

আবহওয়ার পূর্বাভাসে বলা হচ্ছে রাজশাহীসহ দেশের উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে এখন যে তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে তা আগামী দু-তিনদিন ধরে চলবে। রাজশাহীতে গত বুধবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বৃহস্পতিবার তা বেড়ে দাঁড়ায় ৩৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর শুক্রবার ৩৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বিশেষ করে যশোর, খুলনা, সাতক্ষীরা, চুয়াডাঙ্গা অঞ্চলে গরমের তীব্রতা বেশি।

গতকাল দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যশোরে, ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। চুয়াডাঙ্গায় ৩৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি আর সাতক্ষীরা ৩৭ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গরমের কারণে ঘরের বাইরে বের হওয়া মানুষের দুর্ভোগ সবচেয়ে বেশি। তবে গরমে ডাব ও শরবত বিক্রি বেশ ভাল। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, বছরের এ সময়ে গরমের তীব্রতা বেশি থাকায় মানুষ বাইরের পানীয় ও খাবার পান করে অসুস্থ হয়ে পড়েন। এ জন্য সবাইকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন।

1 thought on “গরমে পুড়ছে রাজশাহী

Comments are closed.