গোদাগাড়ীতে কর্মহীনদের জন্য যুবলীগ নেতার খাদ্য সহায়তা

গোদাগাড়ী রাজশাহী

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে চলছে লকডাউন। ঘরবন্দি মানুষের বন্ধ হয়ে গেছে অনেকের আয়-রোজগার। ফলে তারা পড়েছেন খাদ্য সংকটে। রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার দেওপাড়া ইউনিয়নের এমন অসহায় মানুষদের খাদ্যসহায়তা দিচ্ছেন স্থানীয় এক যুবলীগ নেতা। তার নাম বেলাল উদ্দিন সোহেল।

তিনি গোদাগাড়ী উপজেলা যুবলীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক। দেওপাড়া ইউনিয়নের বিয়ানাবোনা গ্রামে তার বাড়ি। সোহেল পেশায় একজন ব্যবসায়ী। তিনি বলছেন, এমন দুর্যোগকালীন মুহূর্তে সরকারের পাশাপাশি সামর্থ্যবানরা যদি একটু এগিয়ে আসেন তাহলে কেউ অনাহারে থাকবেন না। সে চিন্তা থেকেই তিনি মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছেন।

সোহেল তিন দিনের মধ্যে চার হাজার মানুষকে খাদ্যসহায়তা দিচ্ছেন। ইতোমধ্যে দুই হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন। রোববার তিনি দেওপাড়ার পালপুর, ঈশ^রীপুর, ফুলবাড়ি, ভাগইল ও কদমশহর এলাকায় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন। সোমবার বিতরণ করেন ঈদলপুর এলাকায়। মঙ্গলবার বিতরণ করা হবে নিমতলা, বিজয়নগর ও রাজাবাড়ি এলাকায়।

প্রত্যেকটি এলাকায় স্থানীয় স্কুল মাঠে সামাজিক দূরত্ব মেনে মানুষের হাতে খাদ্যসামগ্রী তুলে দিচ্ছেন যুবলীগ নেতা সোহেল। কখনও কখনও খাদ্যসামগ্রী নিয়ে হাজির হচ্ছেন অসহায় মানুষের বাড়িতে। খাদ্যসামগ্রীর মধ্যে আছে ১০ কেজি চাল, তিন কেজি আটা, এক কেজি ডাল, দুই কেজি আলু এবং এক লিটার তেল। এসব খাদ্যসামগ্রী পেয়ে খুশি এলাকার বাসিন্দারা।

যুবলীগ নেতা সোহেল বলেন, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে যারা দরিদ্রসীমার নিচে বসবাস করেন শুধু তাদেরই নয়, মধ্যবিত্ত মানুষও খাদ্যসংকটে পড়েছেন। ফলে অতিরিক্ত ত্রাণসামগ্রীর প্রয়োজন। এ অবস্থায় শুধু সরকারি ত্রাণের জন্য অপেক্ষা করলে হবে না। নিজ নিজ এলাকায় অসহায় মানুষের জন্য সামর্থ্যবানদেরও এগিয়ে আসতে হবে। তাহলে প্রতিটি মানুষের ঘরে খাবার পৌঁছাবে। এই চিন্তা থেকেই তিনি খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করছেন। যতদিন পরিস্থিতির উন্নতি না হচ্ছে ততদিন সাধ্যমতো মানুষের পাশে থাকবেন বলেও জানান সোহেল।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ দৈনিক সানশাইন