চরাঞ্চলের সুবিধার্থে শিবগঞ্জ থেকে চাঁপাই ৩৮ কি.মি. রাস্তা নির্মান শেষের পথে

রাজশাহী

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ ও সদর উপজেলার চরাঞ্চলের মানুষের যোগাযোগের সুবিধার্থে শিবগঞ্জের দূলর্ভপুর ইউপি থেকে সদরের দ্বারিয়াপুর সড়ক ও জনপদ বিভাগের রাস্তা পর্যন্ত ভায়া দ্বিতীয় মহানন্দা সেতু ৩৮ কিলোমিটার রাস্তা নির্মিত হচ্ছে। এর শিবগঞ্জ উপজেলায় ১৬ কিলোমিটার রাস্তার কাজ পুরদমে চলছে বলে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ এর শিবগঞ্জ দপ্তর সূত্রে জানা গেছে। পদ্মা নদীর বাম তীর সংরক্ষণ বাঁধের উপর দিয়ে এ রাস্তাটি নির্মাণ করছেন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ। এই রাস্তা নির্মাণ সম্পূর্ণ হয়ে শিবগঞ্জ উপজেলার বিনোদপুর, মনাকষা, দূর্লভপুর, পাঁকা, উজিরপুর ও সদরের নারায়ণপুর ইউনিয়নের জনগণের যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত হবে। বিশেষ করে শিবগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম অঞ্চলের সীমান্তবর্তী এলাকার মানুষেরা উক্ত রাস্তা দিয়ে সরাসরি চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহর যেতে পারবেন। তাদের মনাকষা, শিবগঞ্জ, বহলাবাড়ী মোড় রাস্তায় এসে যানবাহনে আর চড়তে হবে না। যোগাযোগের ক্ষেত্রে তাদের দূরত্ব ও সময় কমে যাবে। শুধু তাই নয়, উক্ত রাস্তা দিয়ে রাজশাহী মহানগর দ্রুত যেতে পারবেন চরাঞ্চলের জনগণ। বাঁধের উপর দিয়ে পাঁকা কার্পেটিং রাস্তা নির্মাণ হলেও রাস্তাটির দুই পাশে শ্লোপিং ব্লক দিয়ে বাঁধা না হলে বর্ষার সময় দুই পাশ ভেঙ্গে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এই রাস্তা নির্মাণের ব্যাপারে স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তরের শিবগঞ্জ অফিসের একজন কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, রাস্তার পাশের পানি নিষ্কাশনের জন্য ড্রেন নির্মাণ করা হবে। তিনি আরও জানান, আগামী জুন মাসের মধ্যে এই রাস্তার কাজ সম্পূর্ণ হবে। রাস্তা নির্মাণ কাজ সম্পূর্ণ হলে ওই রাস্তার অটোরিক্শাসহ বিভিন্ন ধরনের ছোট-বড় যানবাহন চলাচল করতে পারবে। তবে ওই রাস্তাটি দিয়ে যানবাহন চলাচলের সুবিধার্থে তর্তিপুর ঘাট ও চক ঘোড়াপাখিয়া ঘাটে পাগলা নদীর উপর একটি করে ব্রীজ নির্মাণ করা হলে ছত্রাজিতপুর, নয়ালাভাঙ্গা ও শিবগঞ্জ পৌর এলাকার জনগণ ওই রাস্তাটি বাইবাস হিসেবে ব্যবহার করতে পারবে। অত্র অঞ্চলের জনসাধারণের দাবি উক্ত দুটি স্থানে ব্রীজ নির্মাণ করে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-শিবগঞ্জ-কানসাট মহাসড়কের সাথে সংযোগ দেয়া প্রয়োজন।