জাবিতে পালিত হলো বিশ্ব নগর পরিকল্পনা দিবস

ক্যাম্পাসের খবর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে পালিত হলো বিশ্ব নগর পরিকল্পনা দিবস। বিশ্ববিদ্যালয়ের নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগ কর্তৃক আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম।

দিবসটি উপলক্ষে সকাল ১১ টায় সমাজবিজ্ঞান ভবনের নিচ থেকে একটি র‍্যালি বের হয়ে রেজিস্টার ভবন ঘুরে এসে জহির রায়হান মিলনায়তনে এসে শেষ হয়। র‍্যালিতে অংশ নেন নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

পরে দিবসটি উপলক্ষে একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। শিরিন আক্তার মনির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের চেয়ারম্যান ড. শফিকুর রহমান, অধ্যাপক ড. আবুল কালাম, ড. আখতার মাহমুদ এবং সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের ডিন ড. আবুল হোসেন।

received_978265532244692

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ১৯৪৯ সাল থেকে নগর পরিকল্পনা দিবস পালন করা হয়ে আসছে এবং বাংলাদেশে ২০০৮ সাল থেকে এ দিবসটি পালন করা হয়। বাংলাদেশে ৬ টি বিশ্ববিদ্যালয়ে নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিষয়টি পড়ানো হয় এর মধ্যে শুধুমাত্র জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়েই দিবসটি পালন করা হয়ে থাকে। অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম শিক্ষার্থীদের থেকে ভবিষ্যতের জন্য জাবির কাঠামো পরিকল্পনা আশা করেন।

অনুষ্ঠানের শেষের দিকে ফটোগ্রাফি এবং পোস্টার প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। ফটোগ্রাফি প্রতিযোগিতায় প্রথম হন নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের ৪৩ তম আবর্তনের শিক্ষার্থী সৌরভ দাস পার্থ এবং পোস্টার প্রতিযোগিতায় প্রথম হন সরকার ও রাজনীতি বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী মুজাহিদুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়া নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের শিক্ষার্থী নূর আলী শাহ এবং আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, শুধুমাত্র জাবিতেই না, বাকী বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতেও দিবসটি পালন করা উচিত। তাতে করে সবার মাঝে নগর সচেতনতা বাড়বে।

প্রতিবছর ৮ নভেম্বর বিশ্ব নগর পরিকল্পনা পালিত হয়। এ বছর ৪-৬ নভেম্বর সারাবিশ্বে একসাথে এ দিবসটি পালিত হয়। দিবসটি উপলক্ষ্যে একটি অনলাইন কনফারেন্সও অনুষ্ঠিত হয়। এ বছরের দিবসটির প্রতিপাদ্য ছিলো “আবাসন পুনর্গঠন: সমাজ সুদৃঢ়করণ”।