জাবি ভর্তি পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে আসা ছাত্রলীগ নেতাকে আজীবন বহিস্কার

ক্যাম্পাসের খবর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

ভর্তি পরীক্ষায় প্রক্সি দিতে এসে আটক হওয়া জাবি শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি খলিলুর রহমান আনোয়ারকে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ থেকে আজীবন বহিস্কার করা হয়েছে।

সোমবার (০২ নভেম্বর) সন্ধ্যার পর তার বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়। জাবি’র বাংলা বিভাগের ৩৫তম ব্যাচের শিক্ষার্থী তিনি। প্রক্সি দেওয়ার সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রথমবর্ষের ছাত্র ওয়ালিউর রহমান জনিও তার সঙ্গে আটক হন।

খলিলুর রহমান আনোয়ারের বহিস্কারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জাহাঙ্গিরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুর রহমান। এর আগে একই দিন দুপুর ২টায় ভূতাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের ২০৩ নম্বর রুম থেকে আটক করা হয় খলিলুর রহমান আনোয়ার ও মাহফুজুর রহমান ইমনকে।

২০১৫-২০১৬ শিক্ষাবর্ষে প্রথমবর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষায় ছোট ভাই সানাউলের পরীক্ষায় প্রক্সি দেওয়ার জন্য মাহফুজুর রহমান ইমনের সঙ্গে চুক্তি করেন আনোয়ার। চুক্তি অনুযায়ী, ইমন তার ছোট ভাই ওয়ালিউর রহমান জনিকে ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে প্রক্সি দেওয়ার জন্য চুক্তি করে। সোমবার জনি সানাউলের পরিবর্তে ভূতাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের ২০৩ নম্বর রুমে নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের পরীক্ষা দিতে যান।

এসময় রুমে দায়িত্বরত ভূতাত্ত্বিক বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. এ টি এম শাখাওয়াত হোসেন স্বাক্ষর নেওয়ার সময় প্রবেশপত্র ও সত্যতা যাচাইপত্রে দুই ধরনের ছবি দেখে বিষয়টি দায়িত্বরত অন্য শিক্ষকের সঙ্গে আলোচনা করেন। এমন সময় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি খলিলুর রহমান আনোয়ার দায়িত্বরত শিক্ষকদের ধাক্কা দিয়ে জোরপূর্বক প্রবেশ করে জনিকে রুম থেকে পালিয়ে যেতে বলে। পরে দায়িত্বরত শিক্ষকরা চিৎকার করলে নিরাপত্তাকর্মীরা এসে তাদের দু’জনকে আটক করে।