টস জিতলে ম্যাচ জেতা সহজ হবে ।। ঈশিকা খান

বিনোদন

বাংলাদেশের খেলা হলে ক্রিকেট গ্যালারিতে হাজির হয়ে যান অভিনেত্রী ঈশিকা খান। লাল-সবুজের দলকে উৎসাহ দিতে স্টেডিয়ামে আসা অভ্যাস বানিয়ে ফেলেছেন তিনি। রোববার (৬ মার্চ) এশিয়া কাপের ফাইনালে ভারতের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ। এ নিয়ে লিখেছেন তিনি।

মনে পড়ছে ২০১২ সালের এশিয়া কাপের ফাইনাল খেলার কথা। ওইদিনও গ্যালারিতে বসে খেলা দেখেছি। তখনও আমি বিনোদন অঙ্গনে আসিনি। তাই নিজের আয় বলতে কিছু ছিলো না। বাসা থেকে যে টাকা পেতাম ওইটা জমিয়ে রাখতাম। এভাবে আট হাজার টাকা জমেছিলো। সেখান থেকে সাড়ে সাত হাজার টাকা দিয়ে টিকিট কিনেছিলাম।

ওইবারের ফাইনালে পাকিস্তানের কাছে বাংলাদেশ ২ রানে হেরে যাওয়ায় অনেক কেঁদেছি। আমাদের পাশের একজন অজ্ঞান হয়ে পড়ে গিয়েছিলেন। আবার আমরা ফাইনালে এসেছি। আজও স্টেডিয়ামের গ্র্যান্ড স্ট্যান্ডে বসে খেলা দেখবো। এবার আর কান্না নয়, জিতে হাসিমুখেই মাঠ ছাড়বো আশা করি।

আমাদের এখনকার দলটা অনেক শক্তিশালী। ২০১২ সালের এশিয়া কাপ ফাইনালে যে দলটা খেলেছিলো, তার চেয়েও মজবুত আমরা। তবে ভারত টি২০ র‌্যাংকিংয়ে এক নম্বর দল। তারা যে কোনো টার্গেট চেজ করার ক্ষমতা রাখে। তাই টসটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। আমরা যদি টস জিতে আগে বোলিং করে ভারতকে আটকে রাখতে পারি তাহলে জেতাটা সহজ হবে।

আমাদের সবচেয়ে বড় ভরসা মাশরাফি। তার অধিনায়কত্ব আমাদেরকে এগিয়ে রাখবে। পাকিস্তানের বিপক্ষে গত ম্যাচের কথাই ধরুন, ব্যাটিং লাইনআপ অনুযায়ী মোহাম্মদ মিথুনের নামার কথা থাকলেও মাশরাফি নিজে দায়িত্বটা কাঁধে নিয়ে মাঠে নেমে দলকে জিতিয়েছেন। তার আত্মবিশ্বাসী মনোভাব পুরো দলের জন্য অক্সিজেন।

তাছাড়া সবকিছুই আমাদের অনুকূলে। নিজেদের মাঠের পাশাপাশি নিজেদের দর্শকদের সমর্থন বাংলাদেশের জন্য বড় অনুপ্রেরণা। আশার কথা হলো, এই ভারতকে হারিয়েই গত বছর আমরা সিরিজ জিতেছি। আজও ক্রিকেটাররা সব বিভাগে ভালো খেললে আর ভাগ্য সহায় হলে, আমরাই জিতবো। বাংলাদেশই শিরোপা ঘরে তুলবে। খেলোয়াড়দের জন্য রইলো শুভকামনা।

অনুলিখন : জনি হক

বাংলানিউজ-http://www.banglanews24.com/fullnews/bn/471504.html