ডিক্যাপ্রিও না মরলেও হতো!

বিনোদন

টাইটানিক জাহাজের বিয়োগান্তক ঘটনা নিয়ে জেমস ক্যামেরনের ‘টাইটানিক’ ছবিটি মুক্তি পায় ১৯৯৭ সালে। এতে জ্যাক ও রোজ চরিত্রে অভিনয় করে রূপালি পর্দার অন্যতম প্রিয় জুটিতে পরিণত হন হলিউডের দুই তারকা লিওনার্ডো ডিক্যাপ্রিও ও কেট উইন্সলেট।

ক্লাইম্যাক্স দৃশ্যে জাহাজ ডুবে যাওয়ার পর আটলান্টিক মহাসাগরের হিমশীতল জলে হঠাৎ একটি কাঠের দরজা খুঁজে পায় জ্যাক ও রোজ। এর ওপর যে কোনো একজন উঠতে পারবে বুঝতে পেরে রোজকে ওঠায় জ্যাক। একসময় বরফশীতল পানিতে জ্যাকের মৃত্যু হয়।

‘টাইটানিক’-এর এই সমাপ্তি নিয়ে প্রায় ২০ বছরেও মাথাব্যথা কমেনি ভক্তদের। তাদের অনেকে নানা তত্ত্ব ভাগাভাগি করে আসছে। কারও মতে, দরজায় চাইলেই জ্যাক উঠতে পারতেন।

উইন্সলেট কী মনে করেন? টিভি উপস্থাপক জিমি কিমেলের এ প্রশ্নের উত্তরে উত্তরে ৪০ বছর বয়সী এই ব্রিটিশ অভিনেত্রী বলেন, ‘আমি এটা মেনে নিচ্ছি! আমার মনে হয়, ওই দরজায় জ্যাকের জায়গা হচ্ছিলো না।’ খবর এন্টারটেইনমেন্ট উইকলির।

কিছুদিন আগে স্ক্রিন অ্যাক্টরস গিল্ড অ্যাওয়ার্ডসে একে অপরকে জড়িয়ে ধরেছিলেন ডিক্যাপ্রিও ও উইন্সলেট। সেই মুহূর্ত প্রসঙ্গে জিমিকে কেট বললেন, ‘আমাকে লিওর সঙ্গে একই জায়গায় দেখলে মানুষ উচ্ছ্বসিত হয়। দিনের শেষে কিন্তু এটা ভালোলাগার বিষয়।’

উইন্সলেট আরও বলেছেন, ’২০ বছর হতে চললো, অথচ এখনও মানুষ আমাদের সেই রসায়নে ডুবে আছে। সত্যিই সবাই আমাদের ভালোবাসে। এ নিয়ে আমরা হাসাহাসিও করি! সেদিনও লিও আর আমি বলাবলি করছিলাম, জ্যাক ও রোজকে নিয়ে মানুষ এখনও কতো অভিভূত।’

লিওনার্ডো ডিক্যাপ্রিও ও কেট উইন্সলেট ‘টাইটানিক’ ছাড়া আরেকবার একসঙ্গে অভিনয় করেছেন। ২০০৮ সালে মুক্তি পায় ‘রিভোল্যুশনারি রোড’ নামের ছবিটি।

বাংলানিউজ-http://www.banglanews24.com/fullnews/bn/462648.html