ঢাকার বিমানে করোনা রোগী, বাংলাদেশের সাথে ফ্লাইট স্থগিত করল চীন

আন্তর্জাতিক

ঢাকা থেকে চীনের দক্ষিণাঞ্চলগামী একটি ফ্লাইট চার সপ্তাহের জন্য স্থগিত করেছে দেশটি। চীনের বিমান চলাচল নিয়ন্ত্রণকারী কর্মকর্তাদের উদ্ধৃতি দিয়ে রবিবার (১৪ জুন) রয়টার্স এই তথ্য জানিয়েছে। কভিড-১৯ পজিটিভ যাত্রী পাওয়ায় জুনের ২২ তারিখ থেকে ফ্লাইটটি বন্ধ থাকবে। ঢাকা থেকে গত ১১ জুন গুয়াংজু যাওয়া সিজেড৩৯২ ফ্লাইটের ১৭ জন যাত্রী কভিড-১৯ পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হন। এই পরিস্থিতিকে চীনের কর্মকর্তারা ‘বর্তনী-ছেদকের’সঙ্গে তুলনা করে ফ্লাইটটি নিষিদ্ধ করেন। ওই যাত্রীরা চীনে গিয়ে করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন না কি ঢাকা থেকে সংক্রমণ নিয়ে গেছেন, তা রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়নি।

তবে চীনের রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত সংবাদভিত্তিক টেলিভিশন সিজিটিএন বা চায়না গ্লোবাল টেলিভিশন নেটওয়ার্কের দাবি, ফ্লাইট থেকে নামার পর যাত্রীদের যে পরীক্ষা হয়, সেখানে পজিটিভ ফলাফল আসে। গত কয়েক মাস ধরে চীনের সঙ্গে অধিকাংশ দেশের বিমানচলাচল বন্ধ রয়েছে। পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসায় সম্প্রতি কয়েকটি দেশ থেকে প্রতি সপ্তাহে একটি করে ফ্লাইট চলাচলের অনুমতি দেয় চীন সরকার।

কোনো ফ্লাইটের পাঁচজন যাত্রী করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হলে এক সপ্তাহের জন্য তাদের স্থগিত করা হচ্ছে। ১০ জনের বেশি হলে চার সপ্তাহ। চীন এখন দ্বিতীয় ধাপের সংক্রমণের ঝুঁকিতে রয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায়ও ৫৭ জন নতুন কভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছেন সেখানে। এপ্রিলের ১৩ তারিখের পর একদিনের হিসাবে দেশটিতে এত রোগী এই প্রথম। নতুন মৃত্যুর খবর অবশ্য নেই। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৮৩ হাজার ১৩২ জন এই রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। ৪ হাজার ৬৩৪ জন মারা গেলেও নতুন রোগী বাদে বাকিরা সুস্থ।