দখল দুর্ভোগে রাজশাহীর ভদ্রা মোড়

রাজশাহী

রাজশাহী নগরীর ব্যস্ততম সড়ক ভদ্রা মোড়। আর সেই মোড়ের প্রধান সড়ক দখল করে দীর্ঘদিন থেকে ব্যবসার পসরা সাজিয়ে বসেছেন ব্যবসায়ীরা। সেই সাথে দূর পাল্লার বাস দিন-রাত সড়ক দখল করে রাখে। ফলে প্রশস্থ এই সড়কটি এখন সংকীর্ণ রাস্তায় পরিণত হয়েছে। ব্যস্ততম এই সড়ক দিয়ে অন্যান্য যানবাহনসহ পথচারীদের যাতায়াতে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সেই সাথে বাড়ছে দুর্ঘটনার শঙ্কা।

সরেজমিনে ভদ্রা মোড় ঘুরে দেখা যায়, মোড়টির দুধারের সড়ক প্রশস্থ করা হচ্ছে। সেই সাথে মোড় থেকে রেল লাইন পর্যন্ত রাস্তাটির মাঝ বরাবর আই লাইনার বসানর কাজ চলছে। সড়কটির পশ্চিমে পার্ক সংলগ্ন রাস্তাটি দখল করে ফলসহ চা এর দোকান করা হয়েছে। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত রাস্তা দখল করে চলে এই ব্যবসা। ফলে চলাচলেন জন্য সড়কটি সরু হয়ে পরেছে। এদিকে একই সড়কের পূর্ব প্রান্তে দীর্ঘ সময় ধরে দূর পাল্লার বাস দাড়িয়ে থাকে। যাার কারণে সেই প্রান্তটিও দিনের অধিকাংশ সময় এমনিতেই চলাচলের জন্য অনুপযোগী হয়ে থাকে।

স্থানীয় বাসিন্দা জনি বলেন, ভদ্রা এলাকা এখন এমনিতেই ঘন বসতি পূর্ণ এলাকা। সেই সাথে এলাকাটিতে এখন স্কুল-কলেজ গড়ে উঠেছে। চারিদিকে এখন ৪টি গুরুত্বপূর্ণ আবাসিক এলাকা। আর সেই গুরুত্বপূর্ণ এলাকার প্রবেশ দ্বার হিসেবে পরিচিত ভদ্রা মোড়ের রাস্তা দখল করে চলছে ব্যবসা। রাস্তার এক দিক দখল করে রাখা হয়েছে বাস, আর অপর দিক দখল করে চলছে ব্যবসা। অবস্থা দেখে মনে হচ্ছে, প্রশস্থ সড়কের সরু অংশটি এখন পথচারী ও যানবাহন চলাচলেন জন্য যেন দান করা হয়েছে।

একই অভিযোগ করে পদ্মা আবাসিকের বাসিন্দা সোহেল বলেন, এই সড়ক ব্যবসায়ীরা দখল করে রাখার কারণে কয়েক বছর আগে রাজশাহীর এক জন সাবেক মহিলা সাংসদের স্বামী ও কৃষি ব্যাবংকের কর্মকর্তা ভদ্রা মোড়ে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান। এলাকাবাসীর দাবি ভদ্রা মোড়ের গুরুত্বপূর্ণ সড়কটি দ্রুত সময়ের মধ্যে দখল মুক্ত করে অনাকাঙ্খিত দুর্ভোগ ও দুর্ঘটনা এড়ানোর ব্যবস্থা করা হোক।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ Daily Sunshine