‘ধূমপায়ীদের চাকরি দেওয়া হবে না’

রাজশাহী

ধূমপায়ীদের চাকরি দেওয়া বা কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তি করা হবে না। চাকরিতে যোগদান বা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তির আগে আবেদনকারী ধূমপান করেন কি-না, তা জানতে রক্ত পরীক্ষার ব্যবস্থা চালু করতে হবে বলে জানিয়েছেন রাজশাহীর জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. হামিদুল হক।

বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বাস্তবায়নে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় একথা জানান তিনি। রাজশাহী জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ও উন্নয়ন সংস্থা ‘অ্যাসোসিয়েশন ফর কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট’ (এসিডি) সহযোগিতায় এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভার প্রধান অতিথি মো. হামিদুল হক বলেন, তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বাস্তবায়নে আমাদের কার্যক্রম গতিশীল রয়েছে। এ আইন অধিকতর বাস্তবায়নে সীমাবদ্ধতার মধ্যে থেকে আরও বেশি কার্যক্রম পরিচালনা করতে চাই। তামাকের বহুজাতিক কোম্পানিগুলোর অবৈধ বিজ্ঞাপন, প্রচারণা ও পুরস্কার-প্রণোদনা বন্ধে শিগগিরই মাঠে নামবে রাজশাহী জেলা প্রশাসন।

তিনি বলেন, ধূমপানের জন্য নির্দিষ্ট জোন তৈরি করা দরকার। কারণ, ধূমপানের কারণে অনেকে ‘সেকেন্ড হ্যান্ড স্মোকিং’র শিকার হচ্ছেন। তাই, যে খায় খাক, ঘরের ভেতরে খাক। তাকে দিয়ে যেন অন্যের ক্ষতি না হয়।

তামাকের ব্যবহার কমানোর উপায় হিসেবে ডিসি বলেন, যারা চাকরিতে যোগ দেবে বা কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হবে, তার আগে ধূমপান করে কি-না তা জানতে রক্ত পরীক্ষার ব্যবস্থা চালু করতে হবে। অর্থাৎ, যারা ধূমপায়ী, তাদের চাকরি বা কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তি করা হবে না।

সভায় রাজশাহীতে তামাক নিয়ন্ত্রণ লঙ্ঘনের বিভিন্ন চিত্র তুলে ধরে পাওয়ারপয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন এসিডির অ্যাডভোকেসি অফিসার মো. শরিফুল ইসলাম শামীম। এসময় জেলা প্রশাসনের কাছে বেশ কিছু সুপারিশ তুলে ধরা হয়।

জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মো. নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার, রাজশাহীর উপ-পরিচালক (উপ-সচিব) পারভেজ রায়হান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মুহাম্মদ শরিফুল হক, নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত এডিএম আবু আসলাম, ‘ক্যাম্পেইন ফর টোব্যাকো ফ্রি কিডস-সিটিএফকে’র গ্র্যান্টস ম্যানেজার আব্দুস সালাম মিয়া ও জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর