নগরে ফিরছে মানুষ

জাতীয়

স্বজনদের সঙ্গে ঈদুল ফিতর উদযাপন শেষে নগরে ফিরতে শুরু করেছে মানুষ। রোববার (৯ জুন) রাজধানীর রেলওয়ে স্টেশন, বাস টার্মিনাল ও লঞ্চ টার্মিনালগুলোতে শহরে ফেরা মানুষের বেশ ভিড় দেখা যায়।

তবে বাড়ি যাওয়ার সময় মানুষের যে ভোগান্তি ছিলো, নগরে ফেরার সময় সেই ভোগান্তি অনেকটাই কম- এমনটাই বলছেন নগরে ফেরা মানুষেরা।

ঈদুল ফিতরের ছুটির পর রোববার প্রথম কর্মদিবস। তবে অনেকে বাড়তি ছুটি নেওয়ায় রাজধানীর অফিসপাড়ায় এখনও ছুটির আমেজ কাটেনি। তবে দু’একদিন পরেই জীবন-জীবিকার টানে তারা নগরে ফিরলে আবার প্রাণ চাঞ্চল্য ফিরে আসবে কর্মক্ষেত্রে। ঢাকা ফিরে পাবে তার সেই চিরচেনা পুরোনো রুপ।

রোববার সকাল ১১টায় রাজধানীর তেজগাঁও, মগবাজার, শান্তিনগর, বাড্ডা ও কাওরান বাজার এলাকা ঘুরে দেখা যায়, সড়কগুলো অনেকটাই ফাঁকা। যানবাহনগুলোর গতিও বেশি। প্রায় ৬০-৮০ কিলোমিটার বেগে চলছে যানবাহনগুলো। ফলে আজ যারা কর্মক্ষেত্রে গিয়েছেন, তারা অনেকটা নির্বিঘ্নেই যেতে পেরেছেন।

রেলস্টেশন ও বাস টার্মিনালগুলো ঘুরে দেখা গেছে, ঈদের আগে বাড়ি যাওয়ার সময় যানবাহনে যে চাপ ছিলো, নগরে ফেরার বেলায় সেই চাপ নেই। কারণ যে যার সুবিধামতো ফিরছে।

রংপুরে গ্রামের বাড়িতে ঈদ উদযাপন শেষে সড়ক পথে ঢাকায় ফিরেছেন ফারহানা হক। তিনি বলেন, সড়কপথে যাতায়াত অনেক কষ্টের। তবুও শেকড়ের টানে ফিরে যাই। যাওয়ার সময় দীর্ঘ যানজট ছিলো মহাসড়কে। তবে আসার বেলায় ভোগান্তি অনেকটাই কম।

বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা মাশকুরা বেগম ট্রেনে করে খুলনা থেকে ঢাকায় ফিরেছেন। তিনি বলেন, ট্রেন কিছুটা দেরিতে ছাড়ায় বিরক্ত লেগেছে। এরপরও শুকরিয়া। কারণ ভালোভাবে আবার নগরে ফিরে আসতে পেরেছি।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর