নাটোর সদর হাসপাতালের চিকিৎসক করোনা আক্রান্ত, একাংশ লকডাউন

নাটোর রাজশাহী বিভাগ

নাটোর ২৫০ শয্যার আধুনিক সদর হাসপাতালের একজন চিকিৎসা কর্মকর্তার শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। এ কারণে আজ বৃহস্পতিবার সকাল থেকে হাসপাতালের একাংশ পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। একইসঙ্গে ওই চিকিৎসকসহ দুই চিকিৎসক ও এক অফিস সহকারীকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

আজ দুপুরে জেলার সিভিল সার্জন কাজী মিজানুর রহমান ও হাসপাতালের উপপরিচালক আনছারুল হক এক গণবিজ্ঞপ্তিতে লকডাউনের এ ঘোষণা দেন

গণবিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গতকাল বুধবার রাত সাড়ে আটটার দিকে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালের আয়ুর্বেদিক বিভাগের একজন চিকিৎসা কর্মকর্তার নমুনা পরীক্ষার ফলাফল পাওয়া যায়। এতে ওই চিকিৎসকের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। ২৬ এপ্রিল তাঁর নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছিল। গতকাল পর্যন্ত তিনি নিজ বিভাগে অন্য সহকর্মীদের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছেন। ফলে তাঁর বিভাগের কক্ষটি আজ সকাল থেকে লকডাউন করা হয়েছে। নতুন স্বাস্থ্যকর্মীরা যোগ না দেওয়া পর্যন্ত বা তাঁরা সুস্থ হয়ে কাজে যোগ না দেওয়া পর্যন্ত হাসপাতালের আয়ুর্বেদিক বিভাগে চিকিৎসাসেবা সম্পূর্ণ বন্ধ থাকবে। তবে হাসপাতালের অন্যান্য বিভাগ ও কার্যালয় যথারীতি চালু থাকবে।

হাসপাতালের উপপরিচালক আনছারুল হক চিকিৎসকের করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়া ও আয়ুর্বেদিক বিভাগ লকডাউন হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ নিয়ে নাটোর জেলায় এক চিকিৎসক ও দুই স্বাস্থ্যকর্মীসহ নয়জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে বলে তিনি জানান।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ প্রথম আলো