পবায় গলায় ফাঁস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা

পবা রাজশাহী

রাজশাহীর পবা উপজেলার মহানন্দখালী গ্রামে রাজিব হোসেন হোসেন (২৫) নামে এক যুবক গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। তিনি ওই গ্রামের ইয়াদ উল্লাহর ছেলে।

বুধবার (০৩ মে) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পবা থানা পুলিশ রাজিবের মরদেহ উদ্ধার করে।

পুলিশের ধারণা মঙ্গলবার (০২ মে) দিনগত রাতের কোনো এক সময় তিনি নিজ ঘরের আঁড়ার সঙ্গে গলায় গামছা পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

রাজিবের ভগ্নিপতি নাজমুল ইসলামের বরাত দিয়ে রাজশাহীর পবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পরিমল কুমার চন্দ্র জানান, ট্রলি চালক রাজিব প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার গাড়ি চালিয়ে বাসায় ফেরেন। স্ত্রী সন্তানের সঙ্গে রাতের খাবার খেয়ে শুয়ে পড়েন। রাত আড়াইটার দিকে রাজিবের চার বছরের ছেলে অসুস্থ হয়ে পড়লে তার স্ত্রী শারমিন সন্তানকে বাইরে নিয়ে মাথায় পানি দিয়ে ঘরের বারান্দায় শুয়ে পড়েন।

সকালে তার স্ত্রী ঘুম থেকে উঠে দেখতে পান ঘরের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ। অনেক ডাকাডাকি করে কোনো সাড়া-শব্দ না পেলে তিনি প্রতিবেশীদের ডাকেন। পরে প্রতিবেশীরা এসে ঘরের দরজা ভেঙে দেখতে পান রাজিব ঘরের আঁড়ার সঙ্গে ফাঁস দিয়ে ঝুলে আছেন।

রাজিব ঋণগ্রস্ত ছিলেন বলেও পরিবারের লোকজন জানিয়েছেন। সেজন্য তিনি প্রায় সময়ই চিন্তিত থাকতেন। তাই হতাশাগ্রস্ত হয়ে রাজিব আত্মহত্যা করতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

পবা থানার ওসি পরিমল কুমার চন্দ্র জানান, পুলিশ রাজিবের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা হবে বলেও জানান পবা থানার ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

খবরঃ বাংলানিউজ