পলের বাবার মামলা

বিনোদন

‘ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস’ তারকা পল ওয়াকারের মৃত্যুর দু’বছর পর জার্মান গাড়ি প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান পোর্শের বিরুদ্ধে মামলা করলেন তার বাবা পল উইলিয়াম ওয়াকার। পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা না রেখেই গাড়ি তৈরির অভিযোগ তুলে অনির্দিষ্ট ক্ষতিপূরণ চেয়েছেন তিনি।

পলের বাবার দাবি, সামান্য নিরাপত্তা থাকলেও তার ছেলে প্রাণে বেঁচে যেতেন। গাড়িটির নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা মোটেও সন্তোষজনক ছিলো না। তবে লস অ্যাঞ্জেলেস কাউন্টি শেরিফ বিভাগ তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে, ঘণ্টায় ৮০ থেকে ৯৩ কিলোমিটার হলো গাড়িটির স্বাভাবিক গতি। কিন্তু এর দ্বিগুণ গতি থাকায় দুর্ঘটনায় দুমড়ে-মুচড়ে আগুন লেগে যায় এতে।

এর আগে গত সেপ্টেম্বরে লস অ্যাঞ্জেলেসে আদালতে পোর্শের বিরুদ্ধে মামলা করেন পলের কন্যাসন্তান মিডো ওয়াকার। তার দাবি, সিটবেল্টের যাচ্ছেতাই ডিজাইনের কারণে দুর্ঘটনার পর পল আটকে থাকায় অগ্নিকান্ডের আগে বের হতে পারেননি। এ কারণে নিহত হন তিনি।

তবে পোর্শে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, গাড়িটির গতি বাড়ালে কেমন ঝুঁকি ও বিপদ হতে পারেন তা ভালোভাবেই জানতেন পল। তবুও তিনি তা অতিক্রম করে গেছেন।

২০১৩ সালের ৩০ নভেম্বর ক্যালিফোর্নিয়ার সান্টা ক্ল্যারিটায় বন্ধু রজার রোডাসের পোর্শে গাড়িতে চড়ে যাচ্ছিলেন পল। তিনি ছিলেন যাত্রীর আসনে। গাড়ি ও কনক্রিটের ল্যামপোস্টের সঙ্গে প্রচন্ড ধাক্কা খেয়ে এতে অগ্নিকান্ড হলে দু’জনই ঘটনাস্থলে মারা যান। তখন ‘ফিউরিয়াস সেভেন’ ছবির কাজ করছিলেন পল। মামলা করেছেন পলের বন্ধু রজারের স্ত্রী ক্রিস্টিনও।