পাবনায় বাসে ডাকাতি, মালামাল লুট

পাবনা রাজশাহী বিভাগ

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা পাবনাগামী সি-লাইন পরিবহনে যাত্রীবেশে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। আজ রাত দশটার দিকে পাবনা জেলার বেড়া উপজেলার টুকু বাঁধ এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

এ সময় ডাকাতরা অস্ত্রের মুখে যাত্রীদের নগদ টাকা ও মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক জানান, এ ধরনের খবর আমরা যাত্রীদের নিকট থেকে পেয়েছি। তবে কী পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করা হচ্ছে। তিনি যাত্রীদের বরাত দিয়ে অারও বলেন, ঢাকার গাবতলী থেকে বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে ছেড়ে আসা এসি পরিবহনে পূর্ব থেকেই যাত্রী ওঠে।

বাসটি সিরাজগঞ্জ ফুড ভিলেজে যাত্রা বিরতির পরে রওনা হলে যাত্রীবেশী ডাকাতরা শাহজাদপুর এলাকা অতিক্রম করার সময় ড্রাইভারের নিকট থেকে ডাকাতরা গাড়ি চালানোর নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয়।

পরে তারা যাত্রীদের নিকট থেকে অস্ত্রের মুখে নগট টাকা, মোবাইল ফোন ও মালামাল লুট করে নিয়ে পাবনা জেলার বেড়া উপজেলার টুকু বাঁধ এলাকায় এসে নেমে যায়। আসলে ঘটনাটি আমাদের থানা এলাকার মধ্যে নয়। তারপরেও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য চেষ্টা করা হচ্ছে।

ওই বাসে থাকা যাত্রী হাইকোর্টের আইনজীবী কামরুল ইসলাম বলেন, আসলে আমরা কিছু বুঝে ওঠার পূর্বেই এই ঘটনাটি ঘটে যায়। আমার নিকট থেকে ডাকাতরা ২২ হাজার ৭ শত টাকা ও মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। পুলিশকে পরে অবহিত করেছি।

পুলিশ বলে, এটি অন্য থানার ঘটনা আমরা কি করবো। ওই বাসে প্রায় ৩০-৩৫ জন যাত্রী ছিল। দুই মহিলা যাত্রী চিৎকার দিলে তাদের মারপিট করে ডাকাতরা। তবে তাদের নাম-পরিচয় তিনি বলতে পারেন নি।

এ বিষয়ে সি-লাইন পরিবহনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সেলিম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বিষয়টি নিয়ে আমরা ইতিমধ্যেই পুলিশ প্রশাসনের সাথে কথা বলেছি। ক্ষতিগ্রস্ত যাত্রীদের দিয়ে মামলা করানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।

খবরঃ ডেইলি সানশাইন

1 thought on “পাবনায় বাসে ডাকাতি, মালামাল লুট

  1. আমার একটা পরামর্শ হলো প্রতি যাত্রী টিকেট কাটার সময় কাউন্টারম্যান শুধু নাম্বার না লিখে তার মোবাইলে কথা বলবে তাহলে তার নাম্বার টা সঠিক কিনা বুঝা যাবে এমনকি তাকে খুজে পাওয়া সহজ হবে।

Comments are closed.