পিছিয়ে পড়া হিজড়া, বেদে, দলিত জনগোষ্ঠীকে মুলধারায় নিয়ে যাবার জন্য কাজ করছে সরকার

চাঁপাইনবাবগঞ্জ রাজশাহী বিভাগ

বর্তমান শেখ হাসিনা সরকার সমাজের পিছিয়ে পড়া হিজড়া, বেদে, দলিত জনগোষ্ঠীকে মুলধারায় নিয়ে যাবার জন্য কাজ করছে। এরই ধারাবাহিতকায় পিছিয়ে পড়া হিজড়া, বেদে, দলিত জনগোষ্ঠীকে মুলধারায় নিয়ে যাবার জন্য বিভিন্ন প্রশিক্ষনের কর্মসূচী গ্রহণ করেছে। যাতে করে তারা স্বাবলম্বী হতে পারে।

এছাড়াও ৯ বছরে বর্তমান সরকার ব্যাপক উন্নয়ন করায় দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আরো এগিয়ে যাবে। গতকাল রোববার সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উদ্যোগে হিজড়া, বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জীবন মান উন্নয়নের লক্ষ্যে ৫০ দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালায় এসব কথা বলেন আবদুল ওদুদ এমপি।

বেলা ১১টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে জেলা প্রশাসন ও জেলা সমাজ সেবা দপ্তরের যৌথ উদ্যোগে এই প্রশিক্ষন কর্মশালায় জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল হাসান এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, পুলিশ সুপার টি এম মোজাহিদুল ইসলাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ মোখলেসুর রহমান, হিজড়া সম্প্রদায়ের গুরু ববিতা, সিলা, দলিত জনগোষ্ঠির দিলীপ কুমার পাল প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা সমাজ সেবা দপ্তরের উপ-পরিচালক তৌহিদুল ইসলাম। পরে, নদী ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্থ ১’শ পরিবারের মাঝে ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা, ক্ষুদ্র নৃ-তাত্বিক গোষ্ঠির ৬০ পরিবারকে ৩ লক্ষ টাকা, প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ ৫০ জনকে ৫০ হাজার টাকা ও ৮ প্রতিবন্ধীকে হুইল চেয়ার প্রদান করেন।

এছাড়া, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর ৪২ টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনকে চেক প্রদান করেন । প্রধান অতিথি আবদুল ওদুদ আরো জানান, বর্তমান সরকার নারীদের জন্য বিশেষ সুবিধা, যেমন বিধাব ভাতা, বয়স্ক ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, গর্ভবর্তি ভাতাসহ দেশের উন্নয়নে রাস্তাঘাট, ব্রীজ,কালভাট উন্নয়ন, দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে বিদ্যুৎ ব্যবস্থা, সোলার সিস্টেম চালকরাসহ বিভিন্ন উনয়ন করে যাচ্ছে।

তিনি আগামীতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর আসনে নৌকা প্রতীকে ভোট চেয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহৃত রাখার আহবান জানান।

জেলায় শ্রীঘই গড়ে তুলা হবে হিজড়া আবাসন প্রকল্প :

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় খুব শ্রীঘই গড়ে তুলা হবে হিজড়া জনগোষ্ঠীর জন্য আবাসন প্রকল্প। যেখানে থাকবে হিজড়াদের জন্য বাসযোগ্য পরিবেশ,শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, চিকিৎসা সেবাসহ সব ধরনের সুযোগ সুবিধা। যাতে হিজড়ারা সমাজের অন্য দশ মানুষের সাথে কোন দ্বন্দ জড়াতে না হয়।

সরকার হিজড়া জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে যা যা করা দরকার তাই করবে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় একটি সুন্দর মনোরম পরিবেশ যাচাই বাচাই করে তাদের পূর্নবাসন করার প্রক্রিয়া আমরা দ্রুত করে ফেলবো। সরকার ২০২৬ সালের মধ্যে সামাজিক সুরক্ষানীতি বাস্তবায়ন করবে। যেখানে কেউ গৃহহীন থাকবেনা।

তাই সরকারের সুরক্ষা নীতির মধ্যে হিজড়া জনগোষ্ঠীকে আত্মপ্রত্যয়ী করে গড়ে তুলতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসন কাজ করবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল হাসান। রোববার সকালে জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে জেলা প্রশাসন ও জেলা সমাজ সেবা দপ্তরের যৌথ উদ্যোগে এই প্রশিক্ষন কর্মশালায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা জানান।

প্রশিক্ষন নিয়ে স্বাবলম্বী হতে চাল হিজড়া সমাজ:

কম্পিউটার, কারিগরি প্রশিক্ষন, সেলাই মেশিন, নকশীকাঁথা, গবাদিপশু পালনসহ বিভিন্ন ধরনের দক্ষ প্রশিক্ষন নিয়ে স্বাবলম্বী হতে চান হিজড়া সমাজ। যাতে এ ধরনের প্রশিক্ষন নিয়ে সমাজের আর দশজন মানুষের মত মানুষ হয়ে বাঁচতে পারে। তারা সমাজের অন্য মানুষদের মত স্বাভাবিক জীবন জীবিকা ধারন, ধমীয় অনুশাসন মেনে চলতে পারে।

এজন্য তার প্রতিনিয়ত সংগ্রাম করছেন। রোববার সকালে জেলা প্রশাসন ও জেলা সমাজ সেবা দপ্তরের যৌথ উদ্যোগে ৫০ দিনব্যাপী প্রশিক্ষন কর্মশালায় তারা অনুভ’তি ব্যত্ত করেন হিজড়া নেত্রী ববিতা ও শিলা। তারা সরকারের এ মহান উদ্যোগের জন্য বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে শুভেচ্ছা জানান।

তারা আরো বলেন, এর আগে কোন সরকার এত ভাল উদ্যোগ গ্রহণ করেননি। তারা হাজারো দর্শকের সামনে কথা দেন কম্পিউটার, কারিগরি প্রশিক্ষন, সেলাই মেশিন, নকশীকাঁথা, গবাদিপশু পালনসহ বিভিন্ন ধরনের প্রশিক্ষন সমাজের অন্য মানুষদের দেখিয়ে দেবার আশ্বাস দেন।

খবরটি প্রকাশ করেছেঃ দৈনিক সোনালী সংবাদ