প্রেমে বাধা দেয়ায় ৫ম শ্রেণীর ছাত্রীর আত্মহত্যা

অপরাধ

atyh

নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামে সহপাঠীর সঙ্গে প্রেমে বাধা দেয়ার জের ধরে বিপাশা (১১) নামে ৫ম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থী বিষপানে আত্মহত্যা করেছে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত বিপাশা লক্ষীপুর গ্রামের ফরিদ হোসেনের মেয়ে ও লক্ষীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী।

নিহতের সহপাঠী ও এলাকাবাসী জানান, স্কুল ছাত্রী বিপাশার সঙ্গে একই ক্লাশের ছাত্র বড়াইগ্রাম রেজুর মোড়ের ব্যবসায়ী ফরহাদ হোসেনের ছেলে বাধনের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। ২/৩ দিন আগে বিষয়টি জানাজানি হলে বাধনের বাবা ছেলেকে মারপিট করে তার স্কুলে আসা বন্ধ করে দেয়। এতে মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়ে আজ বিপাশা স্কুল থেকে বাড়িতে এসে বিষপান করে। পরে আবার সে স্কুলে গেলে মাঠে অচেতন হয়ে পড়ে যায়। এ সময় শিক্ষক ও স্থানীয়রা তাকে বড়াইগ্রাম হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিপাশা মারা যায়। বিপাশার হাতে এসিড দিয়ে পুড়িয়ে ‘বি’ লেখা রয়েছে।

এ ব্যাপারে বড়াইগ্রাম থানার ওসি (তদন্ত) বলেন, এ ব্যাপারে একটি ইউডি মামলা হয়েছে। অভিভাবকদের আবেদনের প্রেক্ষিতে পোষ্টমর্টেম ছাড়াই লাশ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে।