প্রেমে সাড়া ‍না পেয়ে স্কুলছাত্রীকে সহপাঠীর চড়

বগুড়া রাজশাহী বিভাগ

প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না পেয়ে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর গালে চড় মেরেছে রবিউল ইসলাম সাজ্জাদ (১৭) নামে মেয়েটির এক সহপাঠী।

তারা বগুড়ার ধুনট উপজেলার আবুল হোসেন জহুরা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

ওই ঘটনায় মেয়েটি বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকালে সাজ্জাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে।

ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বাংলানিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, আবুল হোসেন জহুরা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র সাজ্জাদ রাঙ্গামাটি গ্রামের শাহীন মন্ডলের ছেলে। মেয়েটিও একই গ্রামের বাসিন্দা।

বাড়ি থেকে স্কুলে যাতায়াতের পথে প্রায় গত দুই বছর ধরে ওই ছাত্রীকে প্রেম নিবেদন করে আসছে সহপাঠী সাজ্জাদ। কিন্তু তাতে সাড়া না দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে সাজ্জাদ।

গত ৮ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ৮টার দিকে রাঙ্গামাটি গ্রামের এক শিক্ষকের বাড়িতে প্রাইভেট পড়ে স্কুলে ফিরছিল ওই ছাত্রী। পথে ফাঁকা স্থানে মেয়েটির পথরোধ করে সাজ্জাদ তাকে চড়-থাপ্পড় মারে ও শ্লীলতাহানির চেষ্টা চালায়। এ সময় মেয়েটি চিৎকার দিলে দ্রুত সটকে পড়ে সাজ্জাদ।

এ ঘটনায় ওই ছাত্রী বুধবার বিকেলে সাজ্জাদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করে। তবে এ ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছে সাজ্জাদ।

এ বিষয়ে সাজ্জাদের বাবা শাহীন মন্ডল বাংলানিউজকে বলেন, মেয়েটি আমার ছেলের বিরুদ্ধে প্রাইভেট শিক্ষকের কাছে মিথ্যা যৌন হয়রানির অভিযোগ করে। এতে শিক্ষক আমার ছেলেকে মারধর করেন।

পরে প্রাইভেট পড়া শেষে মিথ্যা অভিযোগের কারণ জানতে চাইলে আমার ছেলেকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে মেয়েটি। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে সে ওই মেয়েকে একটি চড় মেরেছে।

ধুনট থানার ওসি মিজানুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, প্রাথমিক তদন্তে মেয়েটির অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেছে। স্থানীয়ভাবে বিষয়টি মিটমাটের চেষ্টা চলছে। উভয় পরিবারের মধ্যে সমঝোতা না হলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

banglanews24