ফেসবুক ছাড়া কেমন লাগে?

তথ্য প্রযুক্তি

সরকারি নির্দেশে গতকাল থেকে বাংলাদেশে ফেসবুকসহ কয়েকটি যোগাযোগ অ্যাপস বন্ধ রয়েছে। কেউ কেউ প্রক্সি ও ভিপিএন দিয়ে ফেসবুক ব্যবহার করলেও বাংলাদেশে ১ কোটির বেশি ফেসবুক ব্যবহারকারীদের মধ্যে অধিকাংশ মানুষ এ সম্পর্কে ধারণা রাখেন না। তবে যারা ধারণা রাখেন তারাই উত্তর দিয়েছেন ফেসবুক ছাড়া কেমন লাগে। প্রক্সি দিয়ে ব্যবহারকারীরা ফেসবুকে এ ব্যাপারে পক্ষে বিপক্ষে মত দিয়েছেন।

বন্ধ ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে রম্য লেখক ইশতিয়াক আহমেদ লিখেছেন, আমিও সবার মতো ফেসবুকে আসতে চাই। কিন্তু কিভাবে? উত্তরে রুশাদ রাসেল লিখেছেন, ‘ব্লগ দিয়ে’! এর আগের স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, সাকা, মুজাহিদের রায়ের আনন্দের চেয়ে, ফেসবুক বন্ধ কোনও বড় বেদনার খবর নয়।

সাংবাদিক আমিনুল ইসলাম মিঠু লিখেছেন, ফেসবুক ব্যবহারকে নাগরিকদের অন্যান্য মৌলিক অধিকারের সঙ্গে যুক্ত করা এখন সময়ের দাবি। যতই কষ্টসাধ্য হোক না কেন কিংবা চুরি করে হলেও ফেসবুক ব্যবহার করা চাই চাইই। প্রয়োজনে ভার্চুয়ালী দেশান্তরী হয়ে ফেসবুক।  সিঙ্গাপুর থেকে মোহাম্মাদ সাইফুল ইসলাম পল লিখেছেন, সারা বিশ্ব প্রযুক্তি ব্যবহার করে অপরাধীদের দ্রুত সনাক্ত করছে। আর আমরা প্রযুক্তি বন্ধ করে অপরাধী ঠাণ্ডা রাখার চেষ্টা চালাচ্ছি।

আসলেই দেশ অনেক “ডিজিট্যাল” হয়ে গেছে। বদরুদ্দোজা মাহমুদ তুহিন লিখেছেন, সবাই বিদেশ ঘুরে বেড়াচ্ছে। আমি দেশের টানে বাংলাদেশেই অাছি। জয় হোক ভিপিএনের…।  সাংবাদিক রুশাদ রাসেল লিখেছেন, ফেসবুক চালানো একটা যুদ্ধের নাম। মনে হইল যুদ্ধ কইরা ফেসবুক চালাইতেছে। হোক সেটা চোরা পদ্ধতিতে। সাংবাদিক গোলাম দুস্তগির তৌহিদ লিখেছেন, ফেসবুক ছাড়া ভালোই আছি।

ফেসবুকে বেসিস পরিচালক আরিফুল হাসান অপু জানতে চেয়েছেন, ইন্টারনেট ছাড়া কেমন লাগে? উত্তরে শাহাদাত হোসেন লিখেছেন, ইন্টারনেট ছাড়া লাইফ ইমপসিবল! অরণ্য অপু লিখেছেন, রাজ্জাক-শাবানার যুগে চলে গিয়েছিলাম ভাই!! শ্রাবণ হাসান লিখেছেন, প্রায় ৫ বছর পরে বই পড়তেছিলাম … ভালই ভাই। আবার অনেকেই উত্তরে ‘অস্থির লাগে’ বলে উত্তর দিয়েছেন।  অনুপম হোসেন পুর্নম লিখেছেন, আসেন, যে যেইখানে আছি, সেই জায়গার ভাষায় কথা কই।

আমি আমাজনে আছি, ‘চিচিকা মায়াবেলা লুই!’ তাঁর সাথে তাল মিলিয়ে ফারহান আনজুম ধ্রুব লিখেছেন, হ্যালো আমি ফারহান আনজুম। আমেরিকার রকি বিচ থেকে বলছি। একজন মজা করে আরবিতে তাঁর স্ট্যাটাসের উত্তরে লিখেছেন, من الإمارات العربية المتحدة প্রযুক্তি বিষয়ক লেখক সোহাগ লিখেছেন, আমার চ্যাটে গতকাল পর্যন্ত অনলাইন থাকতো ৫-৬শত কিন্তু আজকে মাত্র ৮২ জন। বাকিরা কেউ প্রক্সি ইউজ করতে জানে না।

সাংবাদিক এনামুল মনি লিখেছেন, প্রক্সিময় বাংলাদেশ। এখন দেখা দরকার কয়জন মন্ত্রী মহোদয় ফেসবুকে আছেন। তাঁর উত্তরে বদরুদ্দোজা মাহমুদ তুহিন লিখেছেন, মন্ত্রীরা ফেসবুকে না থাকলেও আইসিটি ডিভিশন, এটুআই, আওয়ামীলীগের অফিসিয়াল পেজে অ্যাক্টিভিটি চলেছে। মেহেদী মিনাফা লিখেছেন, উহহ ফেসবুক ব্যবহার করার জন্য সিংগাপুর এসেছি কিছুক্ষণের মধ্যে দেশে ফিরে ঘুমাতে যাব, আপনি কোথায় আছেন? উত্তরে ইঞ্জিনিয়ার আফিয়াত রহমান লিখেছেন, ভাই ঘুরতে ঘুরতে কোরিয়া আসলে জানায়েন ।

অনেকদিন আপনার সাথে দেখা হয়নি। রুবেল এসবিএস জানতে চেয়েছেন, ফেসবুক চিরতরে বন্ধ হলে, আপনি কি করবেন? উত্তরে সামির সূত্রধর লিখেছেন, কিছু আজাইরা বলদ দুর হবে, এই ভেবে শান্তিতে থাকবো। মোহাম্মাদ সোহাগ লিখেছেন, Facebook বন্ধ হলে আমি TextBook নিয়ে বসে থাকব ভাই।  সোহেল রানা লিখেছেন, সোশ্যাল মিডিয়া গুলা আজকে বন্ধ করছে। না জানি কবে নেট বন্ধ করে দেয়। নেট বন্ধ করলে ত ভাতে মারা যাব। অফলাইন এ একটা/ দুইটা বিসনেস শুরু করার প্লান করতেছি। আপনিও করেন ।

তা না হইলে কিন্তু ভাতে মারা যাবেন। অসম্ভব কে সম্ভব করাই বাংলাদেশের কাজ।  আনিসুর বুলবুল লিখেছেন, ফেসবুক কী দেশের জন্য আসলেই ক্ষতিকর? আমরা যারা অনলাইনে কাজ করি তাদের কাছে ফেসবুকের গুরুত্ব অপরিসীম! ফেসবুক নাই তো মনে হয়, কিছু একটা নাই! আর এই কিছু একটা নাই মানে চোখে অন্ধকার দেখা! ভাইবার, স্কাইপ, হোয়াটসঅ্যাপ, ইমু বন্ধ থাকে থাকুক! কিন্তু ফেসবুক নয়! ফেসবুক খুলে দেওয়া হোক!

 

প্রিয় টেক