বরেন্দ্র অঞ্চলে আর গভীর নলকূপ বসানো হবে না

রাজশাহী রাজশাহী বিভাগ

বরেন্দ্র বহুমুখী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিএমডিএ) আর নতুন কোনো গভীর নলকূপ বসাবে না বলে ঘোষণা দিয়েছেন নতুন চেয়ারম্যান আকরাম হোসেন চৌধুরী।
যোগদানের পরে বৃহস্পতিবার দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে রাজশাহীতে বিএমডিএ’র প্রধান কার্যালয় অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন তিনি।
তবে গভীর নলকূপের পরিবর্তে এর বিকল্প হিসেবে ভূ-উপরিস্থ পানির ব্যবহার বাড়ানো হবে। সেই সঙ্গে শুধু ধান উৎপাদনের দিকে কৃষককে উৎসাহিত না করে অন্য ফসল উৎপাদনেও উৎসাহিত করা হবে। এর ফলে পানির অপচয় কম হবে বলে জানান চেয়ারম্যান।
তিনি বলেন, বিএমডিএর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিত। বিষয়টি নিয়ে তাদের মাঝে ক্ষোভ রয়েছে। তবে বিষয়টি নিয়ে সৃষ্ট জটিলতার জের ধরে সচিবের কালো হাত ভেঙে দাও স্লোগান দেওয়া ঠিক হয়নি। এটি গর্হিত কাজ।

চেয়ারম্যান আরো বলেন, বিএমডিএকে নতুন করে ঢেলে সাজনো হবে। এখানে কোনো সিন্ডিকেট রাখা হবে না। এটি পরিচালনার জন্য নতুন অর্গানোগ্রাম তৈরি করা হবে।

বিএমডিএ সূত্র মতে, গত ২৯ জুলাই জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে নওগাঁ-৩ আসনের প্রাক্তন সাংসদ আকরাম হোসেন চৌধুরীকে বিএমডিএ’র চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। এরপর গত ২ আগস্ট তিনি মন্ত্রণালয়ে যোগদান করেন। গত বুধবার আকরাম হোসেন চৌধুরী ঢাকা থেকে বিমানযোগে রাজশাহীতে এসে পৌঁছেন।

এর আগে গত ২৭ জুলাই বিএমডিএ’র কর্মকর্তা-কর্মচারীরা পদোন্নতিসহ সরকারি নানা সুযোগ-সুবিধার দাবিতে বিএমডিএ’র প্রধান কার্যালয় ঘেরাও করেন। এরপর তারা শুধুমাত্র আইনি নথি ছাড়া সব কাজ স্থগিত করে আন্দোলন করতে থাকেন।

বিএমডিএ’র সচিব দেওয়ান আব্দুস সামাদ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সরকারি সুযোগ-সুবিধা পেতে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছেন বলেও অভিযোগ করেন আন্দোলনকারীরা। এ নিয়ে সচিবের সঙ্গে বিরোধে জড়িয়ে পড়েন কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে মতবিনিময় করে আগামী তিন মাসের মধ্যে তাদের সমস্যা নিরসনে কাজ করা হবে বলে বিএমডিএ’র নতুন চেয়ারম্যান আকরাম হোসেন ঘোষণা দেন। এরপর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তাদের আন্দোলন কর্মসূচি প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- বিএমডিএ’র নির্বাহী পরিচালক কামাল উদ্দিন, সচিব দেওয়ান মো. আব্দুর সামাদ, প্রাক্তন প্রধান নির্বাহী পরিচালক আব্দুর রশিদ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শামসুল হুদা, ড. আবুল কাশেম, সিবিএর সভাপতি আব্দুল হালিম এবং সম্পাদক আতাহার আলীসহ নির্বাহী প্রকৌশলী ও সহকারী প্রকৌশলীরা।

রাইজিংবিডি