বাউয়েট এ ‘হাল্ট প্রাইজ অন ক্যাম্পাস’ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত এবং ফলপ্রকাশ

ক্যাম্পাসের খবর নাটোর রাজশাহী বিভাগ

গত ৬ নভেম্বর ২০২০ নাটোরের বাগাতিপাড়ায় অবস্থিত বাংলাদেশ আর্মি ইউনিভার্সিটি অফ ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি তে অনলাইন এর মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয় হাল্ট প্রাইজ অন ক্যাম্পাস এর গ্রান্ড ফাইনাল ২০২১।

হাল্ট প্রাইজ হচ্ছে একটি বার্ষিক দীর্ঘ প্রতিযোগিতা যার মাধ্যমে বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা যুক্ত বিষয়গুলো নিয়ে সেগুলো সমাধানের জন্য চ্যালেঞ্জ হিসেবে শিক্ষার্থীদের কাছে উপস্থাপনা করা হয়। এবং বিজয়ী দলকে ১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার অনুদান দেওয়া হয়।

হাল্ট প্রাইজ বিশ্বের সবচেয়ে বড় উদ্যোক্তা প্রোগ্রাম যেখানে ১৫০ টির ও বেশি দেশের ৩০০০ বেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী প্রোগ্রামটি অংশগ্রহণ করে থাকে।

জাতিসংঘ, বিল ক্লিনটন ফাউন্ডেশন ও বিজনেস স্কুল মূলত এর আয়োজক। নোবেল বিজয়ী ডঃ মুহাম্মদ ইউনুস ‘শিক্ষার্থীদের নোবেল পুরস্কার’ বলে হাল্ট প্রাইজ কে অভিহিত করেন।

হাল্ট প্রাইজ প্রতিযোগিতায় শিক্ষার্থীদের কে চারটি পর্বের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে হয়। সেগুলো যথাক্রমে অন ক্যাম্পাস প্রোগ্রাম, রিজিওনাল প্রোগ্রাম, এক্সেলেরেটর প্রোগ্রাম এবং গ্লোবাল ফাইনাল।

হাল্ট প্রাইজ অন ক্যাম্পাস ২০২১ এর চ্যালেঞ্জ হচ্ছে ‘ফুড ফর গুড’। ২০৩০ সালের মধ্যে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা কে সামনে রেখে এবং খাদ্যকে উন্নয়নের বিষয়বস্তু হিসেবে বিবেচনা করে এক কোটিরও বেশি মানুষকে কিভাবে ভালোভাবে প্রভাবিত করা যায় সেটিই ছিল এই চ্যালেঞ্জ এর মূল বিষয়বস্তু।
এবছর বাউয়েট এ অনুষ্ঠিত ‘হাল্ট প্রাইজ অন ক্যাম্পাস’ প্রোগ্রামের কার্যকরী কমিটির পাশাপাশি সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে জন্য গঠিত উপদেষ্টা প্যানেলে ছিলেন কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ গোলাম সারোয়ার ভূঁইয়া, প্রভাষক মোহাম্মদ সাব্বির এজাজ এবং মোঃ মেহেদী হাসান।

এছাড়াও বাউয়েট‌ ক্যাম্পাস ডিরেক্টর হিসেবে সামরান রহমান এবং ডেপুটি ক্যাম্পাস ডিরেক্টর হিসেবে হিমেল বিশ্বাস প্রোগ্রামটির দায়িত্ব পালন করেন।

গত ৬/১১/২০২০ এ অনুষ্ঠিত ইভেন্টে টি দুটি সেশনে সম্পন্ন হয়। এখানে মোট ২১ টি দল অংশগ্রহণ করে এবং প্রতিটি দল তাদের যথাযথ আইডিয়া দেয় যা হাল্ট প্রাইজ ২০২১ এর চ্যালেঞ্জ পূরণ করার চেষ্টা করে।

সমাপনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন মাননীয় মহোদয় ব্রিগেডিয়ার জেনারেল প্রফেসর এম. মোস্তফা কামাল এবং মাননীয় রেজিস্টার মহোদয় লেফটেন্যান্ট কর্নেল শেখ শামীম হুসাইন।

বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মির্জা এ.এফ.এম. রশিদুল হাসান, গবেষক ও প্রকৌশলী আজমাইন ইয়াক্বীন সৃজন এছাড়াও সমাপনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডিন অফ ফ্যাকাল্টিজ, বিভাগীয় প্রধানগণ, উপদেষ্টাগণ, বিচারকমণ্ডলী এবং কার্যকরী কমিটির সদস্যবৃন্দ।

গত ১৪/১১/২০২০ এ প্রকাশিত ফলাফল এ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয় ‘এরাইভাল’, ১ম রানার-আপ ‘দ্যা রেভুলেশন স্টার্টআপ, ২য় রানার-আপ ‘পট টু প্লেট’।

অন ক্যাম্পাস প্রতিযোগিতায় বিজয়ী দল আঞ্চলিক সম্মেলনে অংশ নিবে এবং বিজয়ীরা পরবর্তী ধাপে অগ্রসর হতে থাকবে এবং হাল্ট প্রাইজের আন্তর্জাতিক ফাইনাল প্রোগ্রাম এ সরাসরি প্রবেশ করবে।

২০২১ সালে জাতিসংঘের সদর দপ্তরে ‘হাল্ট প্রাইজ আন্তর্জাতিক’ অনুষ্ঠিত হবে। এবং চুড়ান্ত পর্যায়ে বিজয়ী দলকে তার পরিকল্পনার বিস্তার করার জন্য পুরস্কার হিসেবে দেওয়া হবে দশ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

এভাবেই হাল্ট প্রাইজ সমগ্র বিশ্বব্যাপী‌ শিক্ষার্থীদের নানা‌ রকম সামাজিক সমস্যা নিরসনে নিজের মেধাকে কাজে লাগাতে আগ্রহী করে তুলছে এবং পরিকল্পনা বাস্তবায়নের সুযোগ দিয়ে তাদের ‌নতুন আগামী দিনের জন্য প্রস্তুত করে তুলছে। যা সর্বদাই কল্যাণকর।