বাগমারার ১৬ ইউপিতে ভোট সোমবার

বাগমারা রাজশাহী

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার ১৬টি ইউনিয়ন পরিষদের স্থগিত হওয়া নির্বাচন সোমবার (৩১ অক্টোবর) অনুষ্ঠিত হবে।

রোববার (৩০ অক্টোবর) সকাল থেকে ভোটকেন্দ্রগুলোতে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে ব্যালট পেপার ও ব্যালট বাক্সসহ নির্বাচনী সামগ্রী পাঠানো হয়।

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা জানান, পুলিশ ও  আনসার ভিডিপির নিরাপত্তায় সোমবার সকাল থেকে ভোটকেন্দ্রে নির্বাচনী সামগ্রী পাঠানো হচ্ছে।

তিনি জানান, উপজেলার দুই লাখ ৪২ হাজার ৫২৪ জন ভোটার মোট ১৪৫টি ভোটকেন্দ্রের মাধ্যমে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে এক লাখ ২০ হাজার ৪৩১ জন পুরুষ ও এক লাখ ২২ হাজার ৯৩ জন নারী ভোটার। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ করা হবে।

নির্বাচন কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা আরও জানান, বাগমারার ১৬টি ইউনিয়নে এবার চেয়ারম্যান পদে ৬৪ জন, সাধারণ সদস্য পদে ৪৩৯ ও সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ১৩৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের চতুর্থ দফায় গত ৭ মে বাগমারা উপজেলার ১৬টি ইউনিয়নে নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। তবে সহিংসতার আশঙ্কায় দু’দিন আগে অর্থাৎ ৫ মে ভোট স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন।

এরপরও ভোটের নির্ধারিত দিনেই আউচপাড়া ইউনিয়নের হাটগাঙ্গপাড়ায় দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ৪ জন নিহত হন। পরে গত ২৫ সেপ্টেম্বর নতুন তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

রাজশাহীর পুলিশ সুপার (এসপি) মোয়াজ্জেম হোসেন ভুঁইয়া বলেন, বাগমারা উপজেলার মোট ১৪৫টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ১১৫টি ঝুকিপূর্ণ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে ২২টি বেশি ঝুঁকিপূর্ণ। এসব ভোটকেন্দ্রে অতিরিক্ত একজন করে এসআই দেওয়া হয়েছে বলে জানান পুলিশ সুপার।

তিনি বলেন, সোমবার নির্বাচনের দিন বাগমারার নির্বাচনী মাঠে চার হাজার ৬০০ জন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য কাজ করবেন। এর মধ্যে পুলিশ রয়েছেন এক হাজার ৩৭৬ জন।

ফলে প্রতি ৫০ জন ভোটারের জন্য একজন করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য দেওয়া হয়েছে। অন্যরা বিজিবি, ৠাব ও আনসার-ভিডিপি সদস্য। এছাড়াও প্রতিটি ইউনিয়নে দু’টি করে মোট ৩২টি স্ট্রাইকিং ফোর্স কাজ করবে। প্রতিটি টিমে একজন করে ম্যাজিস্ট্রেট নেতৃত্ব দেবেন বলে জানান এসপি।

খবরঃ বাংলানিউজ