বাগমারায় চাঞ্চল্যকর মা-ছেলে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ৫

বাগমারা রাজশাহী রাজশাহী বিভাগ

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় চাঞ্চল্যকর মা-ছেলে হত্যার ঘটনার এক বছর পর পাঁচ ভাড়াটে খুনিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রাজশাহী পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) সদস্যরা রোববার (১৯ ডিসেম্বর) ভোররাত সাড়ে তিনটার দিকে তাদের গ্রেফতার করে। পরে রোববার (২০ ডিসেম্বর) বিকেলে তাদেরকে সাংবাদিকদের সামনে হাজির করা হয়।

অভিযানে গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে তিনটি মোটরসাইকেল ও ভিকটিমের মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে। এই মোবাইল ফোনের সূত্র ধরেই তাদের গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছেন পিবিআই রাজশাহীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হুমায়ূন কবীর।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার লক্ষ্মীপুর গ্রামের আতাউর রহমানের ছেলে মনিরুল ইসলাম (২১), দেবীপুর গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে আব্দুর রাজ্জাক (২৮), শ্যামপুরের আতাউরের ছেলে আব্দুল্লা আল কাফি (২০), লবির উদ্দিনের ছেলে রুহুল আমিন (২৯) ও কাশিপুর গ্রামের ছাদের আলীর ছেলে রুস্তম আলী (২৫)।

হুমায়ূন কবীর বলেন, চাঞ্চল্যকার মামলায় গত ৫ নভেম্বর পিবিআই তদন্তের দায়িত্ব পায়। তারপর থেকেই পুলিশ অনুসন্ধান শুরু করে। অবশেষে শনিবার ভোররাতে অভিযান চালিয়ে এই পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়। তারা সবাই ভাড়াটে খুনি হিসেবে এ হত্যাকাণ্ডে অংশ নেয়।

আসামিরা জোড়া খুনের মিশনে সরাসরি অংশ নিয়েছিলো বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে। আরও তথ্য উদ্ধারের জন্য তাদের রিমান্ড চাওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

রিমান্ডে নিয়ে আরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে হত্যার মূল পরিকল্পনাকারীকেও চিহ্নিত করা যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন পুলিশ ব্যুরোর এই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

গত বছরের ২৩ নভেম্বর রাতে বাগমারা উপজেলার দেউলা গ্রামে আকলিমা খাতুন (৪৫) ও তার ছোট ছেলে জাহিদ হাসানকে (২৫) নিজ ঘরে গলা কেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় মামলার বাদী আকলিমা খাতুনের বড় ছেলে দুলাল স্থানীয় চারজনের নামসহ অজ্ঞাত আরও কয়েকজনকে আসামি করে বাগমারা থানায় মামলা করেন।

বাংলানিউজ-http://www.banglanews24.com/fullnews/bn/450702.html