বাগমারায় ১২ বছরের শিশু ধর্ষণ

বাগমারা রাজশাহী

রাজশাহীর বাগমারার তাহেরপুর পৌরসভার হরিফালা এলাকায় ধর্ষণের শিকার হয়েছে বার বছর বয়সের এক শিশু।

শিশুটিকে প্রথমে বাগমারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে চিকিৎসকরা তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) রাত সাড়ে ১১টার দিকে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এর আগে সোমবার রাত ৮টার দিকে শিশুটিকে কৌশলে নিজের ঘরে ডেকে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে প্রতিবেশি আলামিন (২২) নামে এক যুবক। পরে রাত ১০টার দিকে সে যুবককে ধরে পুলিশে সোপর্দ করেন স্থানীয়রা।

ধর্ষক যুবকের নাম আলামিন (২২)। সে আজিজুল ইসলামের ছেলে।

রাজশাহীর বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান বলেন, এ ঘটনার খবর পেয়ে দ্রুত সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়। পুলিশ গিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে জরুরি চিকিৎসার জন্য প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে ভর্তি করায়। সেখানে অবস্থার অবনতি ঘটলে চিকিৎসকরা শিশুটিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

এদিকে ঘটনার পর আলামিন নামে ওই যুবক পালানোর চেষ্টা করলে স্থানীয়রা তাকে ধরে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। বর্তমানে তাকে থানায় রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

রাজশাহী জেলা পুলিশের মুখপাত্র সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আব্দুর রাজ্জাক খান জানান, অভিযুক্ত যুবক ভিকটিমের দুঃসম্পর্কের ভাই হয়। ঘটনা শোনার পরেই পুলিশকে এ ব্যাপারে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এছাড়া ভিকটিমকে চিকিৎসার জন্য পুলিশের সহায়তায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাটি পুলিশ সুপার মনিটরিং করছেন।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ বাংলানিউজ২৪