বাঘায় হাতের কব্জি কেটে তরুণীর আত্মহত্যার চেষ্টা

বাঘা রাজশাহী

রাজশাহীর বাঘায় ঘুমের ঔষধ সেবনের পর ঘুম না আসায় অবশেষে নিজের হাতের কব্জি কেটে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়েছে শাপলা নামের এক তরুণী। মূমুর্ষ অবস্থায় পরিবারের লোকজন তাকে বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যায়। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রাজশাহী মেডিক্যেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। রোববার বিকালে উপজেলার গৌরাঙ্গপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

বাঘা হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক উম্মে ওয়াহিদা বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, রিবো জিরো পয়েন্ট ফাইভ নামের ৫টি বড়ি একসঙ্গে সেবনের ফলে শারিরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়ে শাপলা। অবস্থা আশংকাজনক ভেবে তাকে রামেকে রেফার্ড করা হয়েছে।

পরিবারের লোকজন জানান, আত্মহত্যার কারনের বিষয়টি তাদের অজানা। শাপলার মা ফিরোজা জানান, বাড়ির এক মেয়ে তার হাত দিয়ে রক্ত ঝরা দেখতে পেয়ে চিৎকার দিয়ে উঠে। তার চিৎকার শুনে ঘরের মধ্যে থেকে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হয়। তবে স্থানীয় অনেকেই অভিমত ব্যক্ত করেছেন, প্রনয়ঘটিত কারণে শাপলা আত্মহত্যার চেষ্টা করে।

খবরঃ দৈনিক সানশাইন