ভদ্রার মোড়ে বিশৃঙ্খল অটোরিকশা

রাজশাহী

ব্যাটারি চালিত অটোর দৌরাত্মে রাজশাহী নগরীর ভদ্রা মোড় সংলগ্ন সড়ক জুড়ে দিন-রাত যানজট লেগেই থাকেছে। এদিকে প্রধান এই সড়ক জুড়ে যাত্রী ওঠানোর নামে প্রায় ২০ থেকে ৩০টি অটো দিন-রাত এভাবে বিশৃঙ্খল ভাবে দাড়িয়ে থাকায় সৃষ্টি হচ্ছে দুর্ঘটনার শঙ্কা। সড়কটির পাশেই ট্রাফিক পুলিশ ও সার্জেন্ট কর্তব্যরত থাকলেও সেই অটোগুলো সরাতে তাদের কোন পদক্ষেত নিতে দেখা যায় না। এলাকাবাসীসহ সড়কটিতে চলাচল করা অন্যান্য যানবাহন যাত্রীরা এমন অভিযোগ করে জানান, দ্রুত সময়ের মধ্যে সড়কটিতে শৃঙ্খলা ফেরাতে রাসিক ও ট্রাফিক বিভাগকে সম্মিলিত ভাবে কাজ করতে হবে।

সরেজমিনে ভদ্রা মোড়ের দক্ষিণ-পশ্চিম কোনের প্রধান সড়কটিতে গিয়ে দেখা যায়, এলামেলো ভাবে ব্যাটারি চালিত অটো রিকশা দাড়া করিয়ে রাখা হয়েছে। চালকেরা অটোগুলো নিয়ে যাত্রি তোলার জন্য এভাবে সড়ক দখল করে দাড়িয়ে রয়েছেন। এদিকে এই সড়ক দিয়ে দুর পাল্লার বাসসহ প্রায় সবধরণের যানবাহন এই স্থানটিতে এসে সেই যানগুলো থমকে দাড়ায় বিশৃখøল ভাবে দাড়িয়ে থাকা অটোর কারণে। এদিকে সড়কটিতে বাঁক থাকায় অটো রিকশা দাড়িয়ে থাকলেও দুর থেকে তা বোঝা যায় না। ফলে অহোরহই ঘটছে ছোটবড় দুর্ঘটনা। আর বাস চালকসহ অন্যান্য যান চালকদের সাথে এখানে দাড়িয়ে থাকা অটো চালকেদের কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতি অহোরহই ঘটছে। আর সব মিলিয়ে সড়কটিতে যানবাহন নিত্য দিনের চিত্র।

স্থানীয় বাসিন্দা ডলার বলেন, ভদ্রার এই সড়ক দিয়ে এখন পায়ে হেটে পার হওয়াই কঠিন হয়ে দাড়িয়েছে। সারাক্ষণ ব্যাটারি চালিত অটো রাস্তার এই অংশে বিক্ষিপ্ত ভাবে দাড়িয়ে থাকে। অথচ সড়কটির পাশেই ঠায় দাড়িয়ে থাকে ট্রাফিক পুলিশ। তারা বিষয়টি দেখেও চুপ থাকে। ফলে এখানে এখন যানজট নিত্য দিনের বিষয়। একই অভিযোগ করে রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের রিউমার্কেট রুটের বাস চালক শাহিন বলেন, প্রতিদিন সকাল থেকে রাত্রি পর্যন্ত চলাচল করতে হয় রাবি’র ছাত্রদের নিয়ে। আর ভদ্রার এই রাস্তায় এসে আমাদের সব সময় ভয়ে থাকতে হয়। কখর যানি নিজের অজান্তে অটো চালকদের অনিয়মের কারণে রাস্তায় একটা দুর্ঘটনা ঘটে যায়।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ Daily Sunshine