মাকে হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করে হত্যা করলো ছেলে!

গোদাগাড়ী রাজশাহী

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে আব্দুস সালেক নামের এক ব্যক্তি তার মাকে হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করে হত্যা করেছে। নেশার টাকা না দেওয়ায় রোববার (০৭ জুলাই) রাত সাড়ে ১০টার দিকে গোদাগাড়ী পৌরসভার আরিজপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের নাম সেলিনা বেগম (৫০)। তিনি ওই এলাকার শাহাবুদ্দিনের স্ত্রী। ঘটনার পর থেকে মাদকাসক্ত ছেলে আবদুস সালেক (৩২) পলাতক।

রাজশাহী গোদাগাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম জানান, সালেক দীর্ঘ দিন ধরেই মাদক সেবন করেন। রাতে বাড়িতে সালেক ও তার মা সেলিনা বেগম ছাড়া আর কেউ ছিলেন না। তখন নেশা করার জন্য সালেক তার মায়ের কাছে টাকা চান। কিন্তু তার মা টাকা দিতে রাজি হননি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সালেক তার মায়ের মাথায় হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

এরপর সালেক ঘটনাটি আত্মহত্যা বলে প্রচারের জন্য তার মায়ের গলায় রশি পেঁচিয়ে মরদেহ ঝুলিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু গলায় ফাঁস লাগানো থাকলেও শরীরের বেশিরভাগ অংশ মেঝেতেই ছিল। এছাড়া মরদেহের মাথা থেকে রক্ত ঝরছিল। ঘটনাস্থল পড়ে ছিল হাতুড়িও। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় এবং হাতুড়ি জব্দ করে।

ওসি জাহাঙ্গীর আলম আরও জানান, ঘটনার পর থেকে ছেলে সালেক পলাতক। তাকে আটকের চেষ্টা চলছে। আর সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরির পর নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে রাতেই থানা হেফাজতে নেওয়া হবে। সোমবার (০৮ জুলাই) সকালে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হবে।

এছাড়া হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের মাদকাসক্ত ছেলে সালেকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হবে বলেও জানান গোদাগাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত এই কর্মকর্তা।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর