মামলা নিচ্ছে না পুলিশ

পাবনা

ঈশ্বরদীতে কলেজছাত্রীর (১৭) শোবার ঘরে অ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনায় সোমবার (০৩ আক্টোবর) পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা রেকর্ড করা হয়নি। অ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনায় গত শনিবার (০১ আক্টোবর) পর্যন্ত  রাতেই ওই ছাত্রীর বাবা এক ব্যক্তির নাম উল্লেখ করে মামলার জন্য ঈশ্বরদী থানায় অভিযোগ জমা দেন। কিন্তু পুলিশ তা মামলা হিসেবে নেয়নি।

অভিযোগ তদন্তকারী কর্মকর্তা ঈশ্বরদী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোবারক পারভেজ বলেন, ‘অ্যাসিড ওই ছাত্রীর গায়ে পড়লে মামলা হতো। কিন্তু যে কক্ষে সিরিঞ্জ দিয়ে অ্যাসিড নিক্ষেপ করা হয়েছে, রাতে সেখানে কেউ থাকে না। তা ছাড়া রাতের অন্ধকারে কে অ্যাসিড ছুড়েছে, তা কেউ দেখেনি। প্রত্যক্ষদর্শী সাক্ষীও নেই। এ জন্য মামলা হিসেবে না নিয়ে ঘটনাটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) হিসেবে গ্রহণ করা হবে।’

তবে এ প্রসঙ্গে আইন ও সালিশ কেন্দ্রের আইনজীবী নিনা গোস্বামী বলেন, ‘মামলা হবে না কেন? অ্যাসিড নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ অ্যাসিডের নমুনা উদ্ধার করেছে। জিডি হিসেবে নয়, এটি নিয়মিত মামলা হিসেবে গ্রহণ করা উচিত। কারণ,ছাত্রীটি ঘরে থাকলে হয়তো অ্যাসিডের কারণে তাঁর শারীরিক বড় ধরনের ক্ষতি কিংবা জীবননাশও হতে পারত।’

ওই স্কুলছাত্রীর অভিযোগ, একই গ্রামের আমিরুল সরদার (৩৬) দীর্ঘদিন ধরে তাকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। বিভিন্ন সময় তাকে বাজে প্রস্তাবও দেন। তাতে সাড়া না দেওয়ায় আমিরুল তার ওপর অ্যাসিড নিক্ষেপের চেষ্টা চালান। আমিরুল এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, তাঁর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তোলা হয়েছে।