মিনুর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয়ভাবে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি বাদশার

রাজশাহী

পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের পুনরাবৃত্তির ইঙ্গিতপূর্ণ বক্তব্য দেওয়ায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনুর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয়ভাবে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা।

বুধবার (৩ মার্চ) সন্ধ্যায় এক প্রতিবাদলিপিতে তিনি এ দাবি জানান।

এর আগে মঙ্গলবার (২ মার্চ) বিকেলে বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় সমাবেশে বিএনপি নেতা মিজানুর রহমান মিনু প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আজ রাত, কাল আবার সকাল নাও হতে পারে। ৭৫ মনে নাই?’ তার এ বক্তব্যকে বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি হিসেবে দেখছেন- ফজলে হোসেন বাদশা।

প্রতিবাদলিপিতে তিনি বলেন, ‘বিএনপি নেতা মিজানুর রহমান মিনুর এ ধরনের বক্তব্য প্রমাণ করে যে ৭৫ এর ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার পেছনে বিএনপির মদদ ছিল।

রাজপথের রাজনীতিতে বিএনপি সুবিধা করতে না পেরে এখন হত্যার ষড়যন্ত্র করছে। এর মাধ্যমে তারা ক্ষমতা দখল করতে চায়। এর অংশ হিসেবেই বঙ্গবন্ধুকন্যাকে হত্যার হুমকি দিয়েছেন জঙ্গি বাংলা ভাইয়ের মদদদাতা মিনু। ’

বিভাগীয় সমাবেশে মিজানুর রহমান মিনু জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়েও আপত্তিকর কথা বলেন। সরকার উৎখাতের প্রশ্নে মিনু বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু কবর থেকে উঠে এলেও সরকারকে রক্ষা করতে পারবে না। ’

মিনুর এ ধরনের বক্তব্যেরও তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, ‘জাতির জনকে অপমানজনক উক্তি কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী মুজিববর্ষে মিনু তার প্রতি চরম ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন। আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। ’

প্রতিবাদলিপিতে ফজলে হোসেন বাদশা আরও বলেন, ‘মিনু তার বক্তব্যে শুধু জাতির জনকের প্রতিই চরম ধৃষ্টতা দেখাননি, তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও হত্যার হুমকি দিয়েছেন। তাই তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয়ভাবেই আইনগত ব্যবস্থা নিতে হবে। আমি সরকারের কাছে এ দাবি জানাই। ’

খবর কৃতজ্ঞতাঃ বাংলানিউজ