যুবকের সুইসাইড নোটঃ দেখা হবে স্বর্গ-নরকের মাঝখানে

অপরাধ নওগাঁ

mjh

‘দেখা হবে ওপারে স্বর্গ বা নরক, এই দুটোর মাঝখানে।’ আত্মহত্যার আগে বগুড়ার নন্দিগ্রামের ছেলে মোমিনুল তার সুইসাইড নোটের ঠিক উপরে এ কথাগুলোই শিরোনাম হিসেবে লিখেছিল। তারপর লিখে গেছেন তার পৃথিবী থেকে ওপারে চলে যাবার কাহিনী। বাংলামেইল পাঠকের জন্য সেই চিঠির কিছু চুম্বুক অংশ হুবহু তুলে দেয়া হলো।

‘এই পৃথিবীতে এতদিন একজনকে অবলম্বন করে বেঁচে ছিলাম, আর তাই সবকিছু ছেড়ে অপেক্ষা করবো ওপারে। মানুষ মৃত্যুর সময় মিথ্যা কথা বলে না। বিশ্বাস করবে কি না জানি না, তুমি একটু চোখের আড়াল হলে যন্ত্রনার যন্ত্রনা কতটুকু তা আমি বুঝেছি। আমার জীবন কাহিনী আজকের পর তোমাকে আর শুনতে হবে না। সবকিছু এখানেই শেষ হয়ে গেল। ওপারের অপেক্ষায় থাকলাম।’

শুক্রবার সকালে নওগাঁ শহরের বাঙ্গাবড়িয়া এলাকার গরুহাটি থেকে মোমিনুল (২৮) নামে উদ্ধারকৃত যুবকের চিঠি এটি।

বগুড়া জেলার নন্দীগ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে মোমিনুল নওগাঁর একটি বে-সরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন। সেই সুবাদে নওগাঁ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ পড়ুয়া এক মেয়ের সঙ্গে পরিচয় হয়। সেই পরিচয় থেকে তৈরি হয় ভালবাসা।

চিঠি থেকে জানা যায়, মেয়েটি মোমিনুলকে কয়েকদিন থেকে এড়িয়ে চলছিল। আর সেই অভিমানেই পৃথিবী ছাড়লেন মোমিনুল।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার সকালে স্থানীয়রা লাশটি পড়ে থাকতে দেখে খবর দেয়। পরে সকাল ৯টার দিকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ওই মৃতদেহের পাশে পড়ে থাকা এ চিঠি উদ্ধার করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.