রমজানেও বনলতায় যাত্রীদের হাতে বাধ্যতামূলক খাবার

রাজশাহী

রাজশাহী-ঢাকা রুটে চলাচলকারী বিরতিহীন বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রীদের হাতে রজমানেও তুলে দেয়া হচ্ছে খাবার প্যাকেট। এতে ক্ষোভ জানিয়েছেন রোজাদার ভ্রমণকারীরা। তবে রেল কর্তৃপক্ষের ভাষ্য, এই খাবার ভ্রমণকারীদের জন্য বাধ্যতামূলক। এর মূল্য ১৫০ টাকা টিকিটের সঙ্গে ধরে নেয়া হয়েছে। ফলে খাবার সরবরাহ বন্ধের সুযোগ নেই।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়েছে মাহে রমজান। অথচ নিয়মমাফিক ভ্রমণকারীদের খাবারের প্যাকেট সরবরাহ করে যাচ্ছে বনলতা এক্সপ্রেস। মঙ্গলবার সকাল ৭টায় রাজশাহী থেকে ঢাকাগামী ট্রেনেও খাবার সরবরাহ করা হয়। প্যাকেট সরবরাহ করা হয়েছে ওই দিন দুপুর ১টা ১৫ মিনিটে রাজশাহীগামী যাত্রীদেরও। বুধবারও ঢাকাগামী যাত্রীদের খাবার প্যাকেট সরবরাহ করা হয়েছে।

রমজানেও যাত্রীদের খাবারের প্যাকেট সরবরাহ নিয়ে চলছে তুমুল বিতর্ক। অনেকেই জানিয়েছেন, বনলতার যাত্রীদের যে খাবার সরবরাহ করা হয়েছে, তা সেহরি কিংবা ইফতারের কোনোটাই নয়। ফলে রোজার দিনে খাবার নিয়ে বেকায়দায় পড়েন যাত্রীরা। রেল কর্তৃপক্ষের এমন কর্মকাণ্ডে ক্ষোভ জানিয়েছেন তারা।

bonolata

গত ২৭ এপ্রিল বাণিজ্যিকভাবে যাত্রা শুরুর পর থেকেই বনলতা এক্সপ্রেসের বাধ্যতামূলক খাবার নিয়ে চলছে বিতর্ক। রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এবং রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা খাবার বাধ্যতামূলক না রাখার দাবি জানিয়েছেন।

রমজানেও বনলতায় খাবার পরিবেশন নিয়ে জানতে চাইলে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক খন্দকার শহিদুল ইসলাম বলেন, পুলিশের প্রতিষ্ঠান ‘মেট্রো বেকারি’ খাবার পরিবেশন করে থাকে।

যতদিন পর্যন্ত খাতাকলমে খাবারের বিষয়টি নিয়ে নতুন কোনো সিদ্ধান্ত না হচ্ছে ততদিন প্রতিষ্ঠানটি খাবার পরিবেশন করবে। তবে খাবার দ্রুত সময়ের মধ্যেই বাধ্যতামূলক থাকছে না বলে আমি শুনেছি।

খবর কৃতজ্ঞতাঃ জাগোনিউজ২৪