রাজশাহীতে ঈদকে সামনে রেখে ব্যস্ততা বেড়েছে দর্জিবাড়িতে

রাজশাহী

রমজানের প্রথম সপ্তাহে, রাজশাহীতে জমে উঠেছে ঈদের কেনাকাটা। বিক্রেতারা বলছেন, এবার থ্রি-পিসের চাহিদাই বেশি। এদিকে, ব্যস্ততা বেড়েছে দর্জিবাড়িতে। টেইলার্স মালিকরা বলছেন, অর্ডার নেয়া হবে ১৮ রমজান পর্যন্ত।

রমজানের শুরুতেই রাজশাহীর বড় কাপড়পট্টি, সাহেববাজারে বেড়েছে ক্রেতা-সমাগম। পাশাপাশি আরডিএ, নিউমার্কেটসহ নগরীর বিভিন্ন ফ্যাশান হাউজেও বাড়ছে ভিড়। এবার চুমকি সুতার কারুকাজ, কারচুপি, বাটিক ও ছোটবড় প্রিন্টের বাহারি রঙের থ্রি-পিসে আগ্রহ নারীদের। এছাড়া দোকানগুলোতে মিলছে, র-সিল্ক, গুজরাটি কটন, আয়েসবা ও জর্জেটের থ্রি-পিস। তবে ছিটকাপড়ের ক্রেতার সংখ্যাই বেশি।

বিক্রেতারা বলছেন, রঙ ও ডিজাইনের বৈচিত্রের পাশাপাশি দামের পার্থক্য রেখেই দোকান সাজিয়েছেন তারা। দেশীয় কাপড়ের পাশাপাশি রাখা হয়েছে বিদেশি কাপড়ও।

এদিকে, এসব মার্কেট থেকে কেনা ছিটকাপড় নিয়ে দর্জির কাছে ছুটছেন বিভিন্ন বয়সের নারীরা। ভিড় এড়াতে আগেভাগেই দিচ্ছেন, নিজের পছন্দের পোশাকের অর্ডার। তাদের অর্ডার অনুযায়ী পোশাক সরবরাহে দিনরাত-এক করে কাজ করছেন কারিগরা।

রাজশাহী টেইলার্স মালিক সমিতির দেয়া তথ্য মতে, ঈদের পোশাক তৈরিতে ১৮ রমজান পর্যন্ত সামর্থ অনুযায়ী অর্ডার নেবে টেইলার্সগুলো।-সময়টিভি

খবরঃ দৈনিক সংগ্রাম