রাজশাহীতে এক পশলা বৃষ্টি, ভারী বর্ষণের আভাস

রাজশাহী

রাজশাহী মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে সোমবার (২০ মার্চ) সন্ধ্যায় এক পশলা বৃষ্টি হয়েছে। সন্ধ্যা পৌনে ৭টা থেকে ৭টা ৩৫ মিনিট পর্যন্ত বৃষ্টি হয়। তবে দমকা হাওয়া ও শিলাবৃষ্টি না হওয়ায় আমের গুটির কোনো ক্ষতি হয়নি।

রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের জ্যেষ্ঠ পর্যবেক্ষক শহীদুল ইসলাম বলেন, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপের প্রভাবে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি হচ্ছে। তার প্রভাবে সারাদিন আকাশ মেঘলা থাকলেও সন্ধ্যায় বৃষ্টি হয়েছে।

আকাশে মেঘ থাকায় রাতে ভারী বর্ষণের আশঙ্কা রয়েছে। এছাড়া সোমবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টা থেকে সাড়ে ৭টা পর্যন্ত রাজশাহীতে ৩ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে, শহীদুল ইসলাম বলেন, সন্ধ্যায় বৃষ্টির সময় দমকা হাওয়া ছিল না। তবে রাতে বজ্রবৃষ্টি ও শিলাবৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে ঢাকা আবহাওয়া অধিদফতরের।

সোমবার রাজশাহীর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বনিম্ন ১৮ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাতাসের আর্দ্রতা ছিলো ভোর ৬টায় ৯০ শতাংশ এবং সন্ধ্যা ৬টায় ৬০ শতাংশ।

এদিকে, সন্ধ্যায় হঠাৎ বৃষ্টিপাতের কারণে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে নগরবাসীকে। বিশেষ করে কর্মজীবী মানুষকে বৃষ্টিতে কাকভেজা হয়েই কর্মস্থল থেকে বাড়ি ফিরতে হয়েছে।

বৃষ্টির কারণে নগরীর প্রধান সড়কগুলো জলমগ্ন হয়ে পড়েছে। পয়ঃনিষ্কাশন ড্রেন বন্ধ থাকায় অনেক নিচুস্থানে পানি জমেছে। সন্ধ্যা গড়িয়ে রাত হতেই সড়কগুলো যানবাহন শূন্য হয়ে পড়েছে। বৃষ্টির কারণে রিকশার নগরীতে রাতে রিকশা পাওয়া দায় হয়ে গেছে।

মহানগরীর কুমারপাড়া মোড়ে সাইফুল ইসলাম নামের এক পথচারী বলেন, সন্ধ্যার পরপরই বৃষ্টি শুরু হয়। বৃষ্টি থামতে প্রায় আধঘণ্টা সময় পার হয়ে যায়।

এরপর শহরের এ প্রধান সড়কে রিকশা ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চলাচল কমে আসে। রিকশা পেলেও দ্বিগুণ ভাড়া হাঁকছেন বলে অভিযোগ করেন সাইফুল ইসলাম।

এর আগে গত ১০ মার্চ রাজশাহীতে ভারী বর্ষণ হয়। ওইদিন বিকেল ৫টা ২৫ মিনিটে বৃষ্টি শুরু হয়। একটানা বৃষ্টি চলে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত।

ওইদিন রাজশাহীতে ১৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়।

খবরঃ বাংলানিউজ