রাজশাহীতে ক্লিনিক মালিকসহ ৩ জনের কারাদণ্ড

রাজশাহী রাজশাহী বিভাগ

রাজশাহীর পৃথক স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ক্লিনিক মালিকসহ ৩ জনকে কারাদণ্ড ও একটি বেকারিকে জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার (৩০ নভেম্বর) সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত পুলিশ ও র‌্যাবের সহযোগিতায় এই অভিযান পরিচালিত হয়।

সকালে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় সদরের ফাতেমা ক্লিনিকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ভ্রামমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নুরুজ্জামান। অভিযানকালে ক্লিনিকের অপারেশন থিয়েটার মানসম্মত না হওয়া, প্রয়োজনীয় সরাঞ্জামাদি না থাকা, লাইসেন্স নবায়ন না থাকা এবং অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের জন্য তিনজনকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

এর মধ্যে ক্লিনিকের যৌথ স্বত্বাধিকারী হুমায়ূন কবির সুমনকে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদণ্ড। প্রশিক্ষণ বিহীন সেবিকা মরিয়ম বেগমকে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড ও ওয়ার্ডবয় মিজানুর রহমান সেন্টুকে দুই মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। পরে পুঠিয়া থানা পুলিশের সহায়তায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে দণ্ডিতদের রাজশাহী কারাগারে পাঠানো হয়।

এদিকে, বিএসটিআই’র রাজশাহী আঞ্চলিক কার্যালয়ের উদ্যোগে র‌্যাবের সহায়তায় মহানগরীর বিসিক শিল্প এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পারভিন সুলতানা।

ভ্রাম্যমাণ আদালতে পণ্যসমূহের স্ট্যান্ডার্ড মার্কিং উল্লেখ না থাকায় মেসার্স বেঙ্গল বেকারিকে নগদ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। পরে জরিমানার টাকা সরকারি কোষাগারে জমা দেওয়া হয়।

বাংলানিউজ