রাজশাহীতে ঘরের ভেতর পাকা কবরে দাফন এলাকায় চাঞ্চল্য!

গোদাগাড়ী রাজশাহী

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে এক ব্যক্তিকে মৃত্যুর ঘরের মেঝের উপরে ইট দিয়ে পাকা করা কবরে দাফন করা হয়েছে। মঙ্গলবার অনেকটাই ঘটা করে কবর পাকা করে তাকে দাফন করা হয়। জীবিত থাকা অবস্থায় ইচ্ছা পোষন করায় পরিবারের লোকজন এ কাজ করেছেন। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

রাজশাহীর গোদাগাড়ীর তাজেন্দ্রপুর মোল্লাপাড়া গ্রামের এলাহী বক্সের ছেলে কায়েশ ভাণ্ডারী (৬৫) সোমবার বিকেল ৪টার দিকে মারা যান। এরপর দাফনের জন্য রীতিমত গোসল করিয়ে পাকা কবরে কায়েশ ভান্ডারীকে দাফন করা হয়।

তার বন্ধু নাজমুল ভান্ডারী জানান, তিনি ৩০ বছর আগে থেকেই পীর রশিদ ভান্ডারীর অনুসারী হিসেবে পরীরের মুরিদ হন। তার বাড়ীতে প্রতি বছর ২৭ আশ্বিন ওরশ পালন করে আসছিলেন তিনি।

কায়েশ ভান্ডারীর স্ত্রী টগরী বেগম ও তার চার ছেলে সবাই জানান, গত কয়েক বছর ধরে তাদের বলে আসছিলেন যে, আমি মারা গেলে আমার কবর ঘরের ভেতর এবং কবরটি যেন চারিদিকে পাকা করে ঘিরে দেয়া হয়। তার এই চাওয়া পুরণ করা হয়েছে বলে জানান তারা।

গোদাগাড়ী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হিপজুর আলম মুন্সি জানান, মৃত ব্যক্তির পরিবার ও তার আত্মীয়-স্বজনের মতামতের ভিত্তিতে কাফন দাফন সম্পন্ন করে পাকা ঘরেই কবর দেয়া হয়।

খবরঃ ডেইলি সানশাইন

5 thoughts on “রাজশাহীতে ঘরের ভেতর পাকা কবরে দাফন এলাকায় চাঞ্চল্য!

Comments are closed.