রাজশাহীতে ছাত্রলীগ কর্মী হত্যায় আওয়ামী লীগের ৩০ জনের নামে মামলা

রাজশাহী

রাজশাহী নগরীতে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের মধ্যে গোলাগুলিতে ছাত্রলীগের এক কর্মী নিহত হওয়ার ঘটনায় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতাসহ ২০ থেকে ২৫ জনের নামে মামলা হয়েছে। নিহত ছাত্রলীগ কর্মী জীবন শেখের বড় বোন শম্পা খাতুন বাদী হয়ে শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

রাজশাহী বোয়ালিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, মামলার এজাহারভুক্ত আসামি হলেন, নগরীর ১২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি হাসান(৪৫), বোয়ালিয়া থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আতিকুর রহমান কালুর ছেলে দুই ছেলে আশিকুর রহমান তুহিন (১৮) ও রেদওয়ানুল রহমান তুষার (২৪), মিয়াপাড়া এলাকার সূর্য মিয়ার ছেলে পাপ্পু (৪৩) ও হোসেনীগঞ্জ এলাকার কালামের ছেলে রনি (২৭)।

ওই মামলায় অজ্ঞাত আরো ২০ থেকে ২৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। ওসি আরো জানান, মামলার আসামিদের মধ্যে এখনো কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, ফেসবুকে আপত্তিকর মন্তব্যের জের ধরে গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে নগরীর রাণীবাজার এলাকায় ছাত্রলীগের দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। এতে গোলাগুলির ঘটনাও ঘটে। এ সময় কয়েকটি দোকানপাট ও মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হন ছাত্রদল ছেড়ে ছাত্রলীগে যোগ দেয়া কর্মী জীবন শেখ। এ ছাড়াও অন্ত১০জন আহত হয়।

আহতদের মধ্যে জীবন ও ছাত্রলীগকর্মী তুষারকে উদ্ধার করে রামেক হাসপাতালে নেয়া হলে জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক জীবনকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত জীবন রাজশাহী সরকারি সিটি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শামসুল আরেফিন রবিনের বাল্য বন্ধু। তারই হয়ে ওই সংঘর্ষে অংশ নিয়েছিলেন তিনি বলে জানা গেছে।

শীর্ষনিউজে প্রকাশিত
লিংকঃ http://www.sheershanewsbd.com/2015/05/30/82492