রাজশাহীতে ছিনতাইকারী চক্রের পাঁচ সদস্য আটক

অপরাধ রাজশাহী রাজশাহী বিভাগ

রাজশাহী মহানগরীতে ছিনতাইকারী চক্রের পাঁচ সদস্যকে আটক করেছে মহানগর গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে ছিনতাই হওয়া ল্যাপটপ, মোবাইল সেট ও বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল সনদ উদ্ধার করা হয়েছে।

মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) রাতভর অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে পুলিশ। পরে রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা কার্যালয়ে রোববার (২৭ ডিসেম্বর) দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে এসব তথ্য জানায়।

আটকরা হলো- মহানগরীর হেতেমখাঁ এলাকার নিজাম উদ্দিনের ছেলে নাজমুল ইসলাম (২৪), কাদিরগঞ্জ এলাকার  বাবুল হোসেনের ছেলে এলিম হোসেন (২৪), নতুন বিলসিমলা এলাকার শেখ মুজিবর রহমানের ছেলে সূর্য (২৭), কাদিরগঞ্জের মৃত সাহেব জানের ছেলে বিপুল (৩২) ও দড়িখরবোনার আজাহার আলীর ছেলে রাহাত আল ইসলাম (২৫)।

সংবাদ সম্মেলনে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের সহকারী কমিশনার সুশান্ত চন্দ্র রায় জানান, ৯ ডিসেম্বর রাতে যশোরের বিসিএমসি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি মহাবিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. আল মামুন সরকার রেলওয়ে স্টেশন থেকে রিকশাযোগে মহানগরীর বিনোদপুরে তার বাড়ি ফিরছিলেন।

পথে তালাইমারী নর্দান ইউনিভার্সিটি এলাকায় পৌঁছালে ছিনতাইকারীরা তার গলায় ছুরি ঠেকিয়ে ১০ হাজার টাকা, মোবাইল ফোন, ল্যাপটপ, শিক্ষার সনদ কেড়ে নিয়ে মোটরসাইকেলে করে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় বোয়ালিয়া মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

মামলাটি অধিকতর তদন্তের জন্য ১২ ডিসেম্বর মহানগর গোয়েন্দা পুলিশে স্থানান্তর করা হয়। দায়িত্ব পেয়ে ছিনতাই হওয়া মালামাল উদ্ধারে কাজ শুরু করে গোয়েন্দা পুলিশ।

তদন্তের এক পর্যায়ে প্রথমে মহানগরীর নতুন বিলসিমলার সূর্য নামের এক যুবককে আটক করা হয়। তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে কাদিরগঞ্জের এলিমকেও আটক করে পুলিশ।

ওই দু’জনকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি উদ্ধারসহ হেতেমখাঁ এলাকার নাজমুলকে আটক করা হয়। পরে কাদিরগঞ্জের বিপুল ও দড়িখরবোনার রাহাত আল ইসলামকে আটক করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদুর রহমান ও পুলিশ পরিদর্শক মেহেদী হাসানসহ অন্য পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলানিউজ-http://www.banglanews24.com/fullnews/bn/452558.html