রাজশাহীতে জিন তাড়ালেন কবিরাজ, মারা গেল স্কুলছাত্র

দুর্গাপুর রাজশাহী

রাজশাহীর দূর্গাপুরে কবিরাজের নির্যাতনে মারা গেছে তুষার সরকার (১২) নামের এক স্কুলছাত্র। সোমবার রাতে উপজেলার বখতিয়ারপুরে মারা যায় ওই ছাত্র।

এর ২০ দিন আগে জিন তাড়ানোর নামে উপজেলার কানপাড়ায় ওই ছাত্রের ওপর চলে বর্বরতা। এরপর থেকে অসুস্থ হয়ে পড়ে তুষার।

নিহত স্কুলছাত্র তুষার ওই গ্রামের আবদুল মজিদ সরকারের ছেলে। সে বখতিয়ারপুর উচ্চবিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। দীর্ঘদিন ধরে মৃগী রোগে ভুগছিল তুষার। তবে জিনের আছর ভেবেই তাকে কবিরাজের কাছে নেয় পরিবার। তার মৃত্যুর খবরে এলাকা ছেড়েছে অভিযুক্ত দুই কবিরাজ।

তুষারের বাবা আবদুল মজিদ সরকারের ভাষ্য, জিনের আছর তাড়াতে ২০ দিন আগে কানপাড়া বাজারে নেয়া হয় তুষারকে। সেখানে গগনবাড়িয়া এলাকার মহিলা কবিরাজ জুবেলা পাগলী ও গুলালপাড়ার মৃত জাবেদ আলীর ছেলে ওমর সানী ছিলেন। ওই দুই কবিরাজ জিন ও মাদার তাড়ানোর নামে আলাদা ঘরে নিয়ে ওই ছাত্রের ওপর নির্যাতন চালায়। এতে অসুস্থ হয়ে পড়ে সে।

সোমবার সকালে তুষারের অবস্থার আরও অবনতি হয়। চিকিৎসার জন্য ওদিন বিকেলে তাকে নেয়া হয় গ্রামের আরেক মান্দু কবিরাজের বাড়িতে। সেখানেই ওই ছাত্রের মৃত্যু হয়। প্রভাবশালীদের চাপে তড়িঘড়ি করে মরদেহ দাফন করে দেন তারা।

তবে এমন অভিযোগ তাদের কাছে নেই বলে জানিয়েছেন দূর্গাপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রুহুল আলম। অভিযোগ পেলে আইনত ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন ওসি।

খবরঃ জাগোনিউজ২৪

5 thoughts on “রাজশাহীতে জিন তাড়ালেন কবিরাজ, মারা গেল স্কুলছাত্র

  1. ২০১৭ সালে এটা সম্ভব??
    অাশ্চর্যের বিষয় এরা এখনও
    করে কর্ম খাচ্ছে!!

Comments are closed.